Home National প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দিল্লির বাড়িতে এল কে আদবানিকে ভারতরত্ন দিলেন রাষ্ট্রপতি

প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে দিল্লির বাড়িতে এল কে আদবানিকে ভারতরত্ন দিলেন রাষ্ট্রপতি

by Shreya Maji
43 views

মহানগর ডেস্কঃ রাম জন্মভূমির জন্য লড়াই করার অন্যতম মুখ ছিলেন লাল কৃষ্ণ আদবানি। দেশে রামমন্দির আন্দোলনের সময়ে  তিন দশক আগে  সঙ্ঘ পরিবারের ‘মুখ’ ছিলেন তিনিই। তাঁর রামরথের উপরে ভোর করেই বিজেপি অনেকটা উত্থান হয়েছে। সেই ব্যক্তিকে দেওয়া হল ভারত রত্ন পুরষ্কার। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে ভারতরত্ন সম্মান প্রদান করলেন রাষ্ট্রপতি দৌপদী মুর্মু।

রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু রবিবার দিল্লিতে তাঁর  বাসভবনে বিজেপির প্রবীণ এবং প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী এল কে আদভানিকে দেশের সর্বোচ্চ  নাগরিক সম্মান ভারতরত্ন প্রদান করেছেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনখর, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং এল কে আদবানির পরিবারের সদস্যরা। রাষ্ট্রপতি ভবনের শেয়ার করা একটি পোস্টে লেখা হয়েছে যে,  “ভারতীয় রাজনীতির একজন নায়ক, এল কে আদবানি, সাত দশকেরও বেশি সময় ধরে অটল উত্সর্গ এবং স্বতন্ত্রতার সাথে জাতির সেবা করেছেন। ১৯২৭ সালে করাচিতে জন্মগ্রহণ করেন, তিনি ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পটভূমিতে ভারতে চলে আসেন। তার সাংস্কৃতিক জাতীয়তাবাদের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে, তিনি কয়েক দশক ধরে কঠোর পরিশ্রম করেছেন, দেশের দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ জুড়ে, এবং আর্থ-সামাজিক-রাজনৈতিক ল্যান্ডস্কেপে একটি পরিবর্তন এনেছেন। জরুরি অবস্থা যখন ভারতের গণতন্ত্রকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছিল, তখন তার মধ্যে অদম্য ক্রুসেডার এটিকে কর্তৃত্ববাদী প্রবণতার বিরুদ্ধে রক্ষা করতে সাহায্য করেছিল।”
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, একজন সংসদ সদস্য হিসেবে লাল কৃষ্ণ আদবানি সংসদীয় ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করেছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হোক বা উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসাবে, তিনি সর্বদা সর্বোপরি জাতীয় স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়েছিলেন, দলীয়  ব্যক্তি হবে তিনি   সম্মান ও প্রশংসা অর্জন করেছিলেন। ভারতের সাংস্কৃতিক পুনর্জন্মের জন্য  তাঁর দীর্ঘ এবং অক্লান্ত সংগ্রামের ফল হিসাবে ২০২৪ সালে অযোধ্যায় শ্রী রাম মন্দিরের  উদ্বোধন হয়েছে। যদিও  লাল কৃষ্ণ আদবানি  সেই অনুষ্ঠানে  উপস্থিত ছিলেন না তাঁর শারীরিক অবস্থার জন্য। এল কে আদবানি (৯৬) জুন ২০০২ থেকে মে ২০০৪ সাল পর্যন্ত উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসাবে এবং অক্টোবর ১৯৯৯ থেকে মে ২০০৪ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি একাধিকবার বিজেপির সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।   তিনি ১৯৮৬ থেকে ১৯৯০, ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৮ এবং ২০০৪ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত সভাপতি ছিলেন।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved