Home National টিকিট দেয়নি দল, হতাশায় নিজেকে শেষ করে দেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত নিলেল সাংসদ

টিকিট দেয়নি দল, হতাশায় নিজেকে শেষ করে দেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত নিলেল সাংসদ

by Mahanagar Desk
1,544 views

মহানগর ডেস্কঃ ভোটে দাঁড়ানোর টিকিট না পেয়ে কেউ এমন কাজ করতে পারেন বলে কেউ হয়ত ভাবতেও পারেননি। জানা গিয়েছে  ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনে লড়ার বা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার টিকিট পাননি ইরোডের বর্তমান সাংসদ গণেশমূর্তি। শোনা গেছে তিনি এই রবিবার বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন। তাঁর পরিবারের সদস্যরা ইরোডে হাসপাতালে নিয়ে যান।

রবিবার এই ঘটনাটি ঘটে। হতাশার চরম পর্যায়ে গিয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিতে চেয়েছিলেন। জানা যাচ্ছে রবিবার জলে সালফেট মিশিয়ে খেয়ে নেন গণেশমূর্তি। তারপর বমি করতে থাকেন তিনি। পরিবার তার অবস্থা দেখে তড়িঘড়ি ইরোডে হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তাঁকে আবার কোয়েম্বাটুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয় চিকিৎসার জন্য। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। MDMK-এর উদীয়মান সূর্য প্রতীকে ইরোড কেন্দ্র থেকে, গণেশমূর্তি জয় লাভ করেছিলেন। কিন্তু ২০২৪ এর নির্বাচনে গণেশমূর্তিকে MDMK টিকিট দেননি। দলের সাথে তিনি দীর্ঘ বছর ধরে আছেন এই ধাক্কা হয়ত তিনি নিতে পারেননি। জানা যাচ্ছে ভাইকোর ছেলে, দুরাই ভাইকো নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার টিকিট পেয়েছেন।

গণেশমূর্তি দ্রাবিড় আন্দোলনের একজন প্রবীণ নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি আদতে পশ্চিম তামিলনাড়ুর বাসিন্দা। পড়াশোনা তাঁর আইনের স্নাতক পর্যন্ত। যখন তিনি স্কুলের পড়ুয়া ছিলেন, পড়ুয়া থাকাকালীন MDMK -এর প্রতি আকৃষ্ট হয়েছিলেন। এমনকি পরে তিনি ইরোডে ডিএমকে-এর ছাত্র শাখার যুগ্ম সংগঠক হিসেবেও ছিলেন। তাঁর বয়স যখন ৭৬ বছর তখন তিনি ভাইকোর অনুগতদের মধ্যে একজন হিসাবে পরিচিত ছিলেন। তিনি ১৯৮৪ সালে, MDMK ছাত্র শাখার ইরোড জেলা সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত হন। আবারও তিনি ১৯৮৯ সালেও মোদাকুরিচি বিধানসভা কেন্দ্র থেকে MDMK-এর টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন। পরবর্তীকালে, ভাইকো পার্টিকে বিভক্ত করে, ১৯৯৬ সালে তাঁর নিজস্ব মারুমালার্চি দ্রাবিড় মুনেত্র কাজগাম তৈরি করতে দল ছেড়ে বেরিয়ে যান, তখন গণেশমূর্তি দলের সঙ্গে যোগ দিয়ে কাজ সামলান। লোকসভা নির্বাচনে১৯৯৮, ২০০৯ সালে, গণেশমূর্তি এমডিএমকে-র টিকিটে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু ২০১৪ সালে এআইএডিএমকে-র কাছে ইরোড কেন্দ্র থেকে হেরে যান। আবার ২০১৯ সালে, গণেশমূর্তি ইরোড থেকে ডিএমকে-র টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন। তারপর ফের যখন আসন ভাগাভাগি নিয়ে কথাবার্তা-আলোচনা হয়েছিল, তখন এমডিএমকে জানিয়েছিল, গণেশমূর্তিকে আবার টিকিট দেওয়া হয়েছে।

কানাঘুষা শোনা যাচ্ছে, গণেশমূর্তিকে টিকিট না দেওয়ার জন্য তিনি এমন চরম পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। কিন্তু MDMK- এর দাবি, গণেশমূর্তি আসলে পারিবারিক কিছু সমস্যার কারণে বিষ খেয়েছিলেন, তার স্ত্রী বালামনির মৃত্যু হয় তার জন্য তিনি মানুষিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে পরিবারের নানা সমস্যা আর আরও কোনো কারণ বসত হতাশায় ভুগছিলেন, তাই এমন সিদ্ধান্তের পথে হাঁটতে চলেছিলেন।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved