করোনা সংকটেই শুরু হচ্ছে রেলের বিভিন্ন পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া, দিনক্ষণ ঘোষণা রেলমন্ত্রীর

12

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা সংকটের জেরে একদিকে যেমন দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ক্রমশ তলানিতে গিয়ে পৌঁছেছে অন্যদিকে তেমনই হুড়মুড়িয়ে বেড়েছে বেকারত্ব। এহেন অবস্থায় দেশের বেকার যুবকদের কথা চিন্তা করে শনিবার টুইটে এক বড় ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। শনিবার টুইট করে রেলমন্ত্রী জানালেন, রেলের বিভিন্ন পদে চাকরির জন্য যে সমস্ত যুবক-যুবতী আবেদন করেছেন তাদের আবেদন পত্র পরীক্ষার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। রেলের বিভিন্ন পদে নিয়োগের জন্য আগামী ১৫ ডিসেম্বর পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হবে।

প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতিতে নজরে রেখে বর্তমানে সমস্ত রকম নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধ রেখেছে সরকার। যার ফলে হতাশা চেয়েছে কর্মহীন যুব সম্প্রদায়ের মধ্যে। তাদের তরফে আবেদন জানানো হয়েছিল সরকার যদি জয়েন্ট ও নিট পরীক্ষা নিতে পারে, সে ক্ষেত্রে এসএসসি ও রেলের মতো পরীক্ষা নিতে আপত্তি কোথায়? সরকার কেন গুরুত্বপূর্ণ এই সমস্ত পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই বেকার যুবক যুবতীদের কথা চিন্তা করে শনিবার টুইটারে রেলমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন, ‘রেলের তিনটি শ্রেণীর বিভিন্ন পদে নিয়োগ প্রক্রিয়ার আবেদন খতিয়ে দেখা সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ১৫ ডিসেম্বর এই সমস্ত পদে নিয়োগের জন্য পরীক্ষা নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হতে চলেছে।’

উল্লেখ্য, দেশে বাড়তে থাকা বেকারত্ব ইস্যুতে ইতিমধ্যেই বিরোধীদের কোপের মুখে পড়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কার্যত প্রায় প্রতিদিন দেশের বেকারত্ব ও অর্থনীতি ইস্যুতে সরকারকে নিশানায় নিয়েছেন কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী। শনিবারও টুইট করে তিনি বলেন, ‘সরকারের চিন্তাধারা হল Minimum Govt Maximum Privatisation। কোভিড অজুহাত মাত্র। সরকার চাইছে স্থায়ী কর্মী মুক্ত দফতর। দেশের যুব সম্প্রদায়ের ভবিষ্যৎ চুরি করে নিজের মিত্রদের সামনের সারিতে তুলে আনতে চাইছে এরা।’ শুধু তাই নয় তিনি আরও বলেন, ‘দেশের ১২ কোটি মানুষ বর্তমানে বেকার। ৫ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতির স্বপ্ন মুছে গিয়েছে। দেশবাসীর সমৃদ্ধি ও নিরাপত্তার স্বপ্ন নিখোঁজ। অথচ প্রশ্ন করলে কোনও জবাব নেই সরকারের।’ রাহুলের এই অভিযোগের পর পীযূষ গোয়েলের টুইটকে জবাব হিসেবেই দেখছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।