‘ তথ্য চেয়েও পাওয়া যাচ্ছে না ‘, আবারও রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব রাজ্যপাল ধনখড়

10

 

মহানগর ডেস্ক: প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে রাজ্যপালের সাক্ষাৎ হয়েছিল রেড রোডে। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর পাশে গিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন রাজ্যপাল এবং মাথা নিচু করে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন তিনি। এই রকম সৌভ্রাতৃত্বের পর একটি রাত পেরোতে না পেরোতেই, সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে হাজির রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

বৃহস্পতিবার সকালে টুইটারে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে লেখেন, ‘রাজ্যপালের চাওয়া তথ্য প্রদান করা রাজ্য সরকারের সাংবিধানিক দায়িত্ব। সরকার তাঁর কাছ থেকে কোনও তথ্যই আড়াল করতে পারে না এবং এই ধরনের আচরণকে বলে সংবিধান লঙ্ঘন। যা উপেক্ষা করা যাবে না।’ সঙ্গে রাজ্য সরকারের কাছে চাওয়া চিঠিগুলো ছবি তুলে পোস্ট করেন তিনি।

রাজ্যপালের অভিযোগ, সরকারের কাছ থেকে চাওয়া একাধিক বিষয়ে নানা তথ্য চাওয়ার পরও কোনও তথ্য দেওয়া হচ্ছে না। তাঁর দাবি, সংবিধানের ১৬৭ নম্বর ধারা অনুযায়ী, এ বিষয়ে তাঁকে অবহিত করা রাজ্য সরকারের বাধ্যবাধকতার মধ্যে পড়ে। যা লঙ্খন করছে বাংলার সরকার।

পেগাসাস-কাণ্ড নিয়ে তদন্তের জন্য রাজ্য সরকারের গঠিত তদন্ত কমিশন, মা ক্যান্টিন চালানোর খরচ, এরোট্রোপলিস প্রকল্প, রাজ্যের শিল্পক্ষেত্রে বিনিয়োগ এবং বিশ্ব বঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন (বিজিবিএস) আয়োজনের খরচ, গোর্খাল্যান্ড আঞ্চলিক প্রশাসন, রাজ্য অর্থ কমিশন, অতিমারি পরিস্থিতি বিভিন্ন সরঞ্জাম কেনার খরচ ইত্যাদি নানা বিষয়ে তথ্য রাজভাবনের তরফ থেকে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু কোনওটাই এখনও মেলেনি।

মঙ্গলবার বি আর অম্বেডকরের মূর্তিতে মাল্যদান করতে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল। সেখান থেকেও বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও আওয়াজ তোলেন তিনি।