মোদী সরকারের ফ্যাসিস্ট সার্জিক্যাল স্ট্রাইক, জেএনইউ কাণ্ডে জ্বলে উঠলেন মমতা

5
kolkata news

Highlights

  • যা চলছে তাঁকে ভয়াবহ বললেও কম বলা হবে
  • পড়ুয়াদের উপর ন্যাক্কার জনক হামলায় ইতিমধ্যেই তেতে উঠেছে দেশের যুবসমাজ
  • ওই ঘটনাকে মোদী সরকারের ‘ফ্যাসিস্ট সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ বলে আখ্যা দিলেন মমতা

মহানগর ওয়েবডেস্ক: যা চলছে তাঁকে ভয়াবহ বললেও কম বলা হবে। রবিবার রাতে দিল্লির জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের উপর ন্যাক্কার জনক হামলায় ইতিমধ্যেই তেতে উঠেছে দেশের যুবসমাজ। এই প্রেক্ষিতেই এবার কেন্দ্রের মোদী সরকারের উপর চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাকিস্তানের উপর যে সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে ৫৬ ইঞ্চির ছাতি ফোলাতেন মোদী। সেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইককেই টেনে এনে সরাসরি ওই ঘটনাকে মোদী সরকারের ‘ফ্যাসিস্ট সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ বলে আখ্যা দিলেন মমতা।

সরকারী কাজে সোমবার কাকদ্বীপে গিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই রবিবারের ঘটনার প্রেক্ষিতে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মমতা বলেন, ‘ছাত্রদের উপর এই ধরণের হামলা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ঘটনা। দেশের লোকতন্ত্রের উপর হামলা চালানো হচ্ছে। কিছু বললেই দেগে দেওয়া হচ্ছে পাকিস্তানী বলে। প্রতিবাদ করলেই বলছে দেশদ্রোহী। এটা কি সরকার?’ এরপরই যাদবপুর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দিল্লি পুলিশ অরবিন্দ কেজরিওয়ালের নিয়ন্ত্রণে নয়। ওটা কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণাধীন। একদিকে ওরা বিজেপির গুণ্ডাবাহিনী পাঠিয়েছে, অন্যদিকে পুলিশকে নিষ্ক্রিয় করে রেখেছে। আর পুলিশও বা কি করবে? ওরাও তো শীর্ষ মহলের আজ্ঞাবহ। জেএনইউতে যেটা হল সেটা মোদী সরকারের ফ্যাসিস্ট সার্জিক্যাল স্ট্রাইক।’

এরপরই পাকিস্তানের সঙ্গে প্রতিনিয়ত মোদী সরকারের তুলনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের বিস্তর পার্থক্য রয়েছে পাকিস্তান গণতান্ত্রিক দেশ নয়। কিন্তু ভারত একটি গণতান্ত্রিক দেশ।’ শুধু তাই নয় তিনি আরও বলেন, ওনারা শুধু অন্য রাজ্য নিয়ে কথা বলেন, নিজেদের ঘরে কী হচ্ছে? লখনউতে কী হচ্ছে? মুজফফরনগরে কী হচ্ছে? দেস্খুন সরকার আসবে যাবে। কিন্তু ক্ষমতা পেয়ে যা খুশি তাই করবে এটা কেমন কথা? আমরাও তো কাজ করি।’

প্রসঙ্গত, রবিবার রাতের অন্ধকারে পুলিশের উপস্থিতিতে জেএনইউর পড়ুয়াদের উপর নৃশংস দুষ্কৃতী হামলার পর ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে গোটা দেশ। এই ঘটনায় অভিযোগ উঠেছে এভিবিপির বিরুদ্ধে। পরিস্থিতির জেরে দায়সারা ভাবে পুলিশ এফআইআর দায়ের করলেও এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়নি কাউকে। এই নিকৃষ্ট হামলার জেরে রবিবার রাতেই টুইট করে সরব হয়েছিলেন মমতা। দিল্লিতে প্রতিনিধি দল পাঠাবেন বলেও জানিয়েছিলেন। এবার সরাসরি এই ঘটনার জেরে মোদী সরকারকে ‘ফ্যাসিস্ট সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ বলে আখ্যা দিলেন মমতা।