Kajol-Karan :বন্ধুত্বের রসায়ন বদলায় না, সবার সামনেই তাই করণকে জোর ধমক কাজলের

98
Kajol-Karan :বন্ধুত্বের রসায়ন বদলায় না, সবার সামনেই তাই করণকে জোর ধমক কাজলের
বন্ধুত্বের রসায়ন বদলায় না

মহানগর ডেস্ক : বয়স সত্যিই শুধুমাত্র একটি সংখ্যা। তার প্রভাব কোনওভাবেই পড়ে না বন্ধুত্বের ওপর। সেটাই যেন আরেকবার প্রমাণ করল কাজলকরণের(Kajol-Karan )বন্ধুত্ব। প্রায় কয়েক দশক হতে চলল তাঁদের সম্পর্কের। আগের মতোই বজায় রয়েছে ঝগরা খুনসুটি সবকিছু। দুজনেই এখন তা্দের ক্যারিয়ারের মধ্যগগণে। পরিচালক বন্ধুর জন্মদিনে এসে সে কথাই যেন বারবার মুখে উঠে আসছিল ‘অঞ্জলী’র।

করণ জহার পা দিলেন ৫০ বছর বয়সে। তাঁর জন্মদিনের পার্টিতে হাজির হয়েছিল প্রায় গোটা বলিউড। কত স্মৃতি কত গল্প ভিড় জমে ছিল সেই জন্মদিনের উৎসবে। শাহরুখ থেকে শুরু করে কাজল ,মাধুরী দীক্ষিত, অনন্যা পান্ডে যেন সমস্ত প্রজন্ম মিলেমিশে একাকার। সেখানেই কথা উঠল নব্বইয়ের দশকের অন্যতম হিট ছবি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ নিয়ে। করণ পরিচালিত এই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন কাজল এবং শাহরুখ। তবে সেই ছবি নিয়ে আজও কাজল লজ্জিত।

আরও পড়ুন, শুক্রবার CBI দফতরে হাজিরা দিচ্ছেন না শওকত মোল্লা, ১৫ দিন সময় চান বিধায়ক

শুটিংয়ের এক বিশেষ দৃশ্যে বাস্কেটবল কোটের মধ্যে কাজলের জুতোর ফিতে খুলে গিয়েছিল। শরীরটা তেমন ভালো ছিল না নায়িকার। অপরদিকে পরিচালক তাড়া দিচ্ছেন ,’আরে তাড়াতাড়ি ফিতেটা বাধ। ওই ভাবে বাধছিস কেন’। তখনই ক্ষেপে যান কাজল। বলেন ,’এই একদম চুপ’। স্বাভাবিকভাবেই ঘাবড়ে গিয়ে ছিলেন করণ। কাজল পরে লজ্জা পেয়ে নিজেই অনুশোচনায় মরেছিলেন।

যতই বন্ধু হোক এই ছবির পরিচালক সেই করণ। তাঁর দণ্ডমুণ্ডের কর্তা। তাঁকে সবার সামনে এইরকম ভাবে বলার জন্য টানা দশ মিনিট ধরে বন্ধুর কাছে ক্ষমা চেয়েছিল কাজল। যদিও এই নাটকীয় দৃশ্য ছবির অংশ নয় তবে আজও দুজনে মনে রেখেছে সেই কথা।

Kajol-Karan