Home Kolkata “দু’সপ্তাহ, ৩৫০ ঘণ্টা পার, আবাস এবং মনরেগা নিয়ে শ্বেতপত্র কই?” বিজেপিকে প্রশ্ন অভিষেকের

“দু’সপ্তাহ, ৩৫০ ঘণ্টা পার, আবাস এবং মনরেগা নিয়ে শ্বেতপত্র কই?” বিজেপিকে প্রশ্ন অভিষেকের

by Sibapriya Dasgupta
18 views

মহানগর ডেস্ক : ১০০ দিনের কাজ এবং আবাস যোজনা প্রকল্প নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে পুনরায় সরব হলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। নিজের এক্স হ্যান্ডলে বৃহস্পতিবার তিনি লেখেন, “প্রায় দু’সপ্তাহ, ৩৫০ ঘণ্টা হয়ে গেল। কিন্তু বিজেপি এখনও আবাস এবং ১০০ দিনের কাজ নিয়ে শ্বেতপত্র প্রকাশে আমার চ্যালেঞ্জ গ্রহণে এগিয়ে এল না।”

এদিকে অভিষেকের শ্বেতপত্রের চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গে পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছে রাজ্য বিজেপিও। দলের মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য এই প্রসঙ্গে বলেন, “আমি যদি বলি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শ্বেতপত্র প্রকাশ করে জমা দিন। দেবেন মুখ্যমন্ত্রী? অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ করছেন শ্বেতপত্র প্রকাশ করার জন্য। এ কথা তো রাজ্য সরকারের সচিবেরা কেন্দ্র সরকারকে বলতে পারলেন না! আদালতে বলতে পারলেন না।”

শমীক বলেন, “আসলে তৃণমূল অন্তঃসারশূন্য হয়ে পড়েছে। তৃণমূল রাজনৈতিক ইস্যুহীনতায় ভুগছে। নির্বাচনটা লোকসভা নির্বাচন। এই নির্বাচন কলকাতা থেকে দিল্লি যাওয়ার নির্বাচন। দিল্লি থেকে কলকাতায় ফিরে আসার নির্বাচন নয়। যে অভিযোগ তিনি বার বার করেছেন, মানুষ তা গ্রহণ করেননি, প্রত্যাখ্যান করেছেন। তাই এ ধরনের কথার কোনও প্রাসঙ্গিকতা আছে বলে মনে হয় না।”

রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল আবাস যোজনা এবং ১০০ দিনের কাজ নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে দীর্ঘ দিন ধরেই বঞ্চনার অভিযোগ তুলে আসছে। তৃণমূলের অভিযোগ, আবাস এবং ১০০ দিনের প্রকল্প নিয়ে মিথ্যাচার করছে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার। জনগণের টাকা নিয়ে যা খুশি তাই করছে বিজেপি। গত ১৪ মার্চ “অধিকার যাত্রা” কর্মসূচি থেকে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছিলেন অভিষেক।
অভিষেক প্রকাশ্য সভায় দাবি করেছিলেন, ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর থেকেই রাজ্যের আবাস যোজনা এবং ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের জন্য এক পয়সাও বরাদ্দ করেনি কেন্দ্র। তার পরই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে শ্বেতপত্র প্রকাশের জন্য চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন তৃণমূলের সেনাপতি। শুধু তাই-ই নয়, অভিষেক তখন এটাও বলেছিলেন, কেন্দ্র যে টাকা দেয়নি, তা প্রমাণ করতে বিজেপির নেতৃত্বের সঙ্গে মুখোমুখি বসে তর্ক করতেও তিনি রাজি। আবারও সেই প্রসঙ্গ তুলে বৃহস্পতিবার নিজের এক্স হ্যান্ডলে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে জানালেন, বাংলার মানুষ অপেক্ষা করছেন। তাঁরা স্বচ্ছতা চান।

অভিষেক বালুরঘাটের এক সভা থেকে দাবি করেন, গত তিন বছরে আবাস যোজনা, ১০০ দিনের কাজের মতো কেন্দ্রীয় প্রকল্পে কেন্দ্র কত টাকা রাজ্যের জন্য বরাদ্দ করেছে, তা শ্বেতপত্র প্রকাশ করে জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  লোকসভা নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার আগে রাজ্যে চার বার ঘুরে গিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। আরামবাগ, বারাসত, কৃষ্ণনগর এবং শিলিগুড়িতে জনসভা করেন তিনি। সেখান থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আবাস এবং ১০০ দিনের টাকা নিয়ে ওঠা অভিযোগের জবাব দেন তিনি। রাজ্যে এসে প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছিলেন, পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সরকারকে আবাস প্রকল্পের টাকা দিয়েছিল কেন্দ্র। কিন্তু সে টাকা নিয়ে “দুর্নীতি” হয়েছে।

ঘটনাচক্রে, এর পরেই অভিষেক গত ১০ মার্চ ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে আবাস প্রকল্প নিয়ে মোদীর দাবি খণ্ডন করেন। একটি চিঠি দেখিয়ে তৃণমূলের অভিষেক বলেছিলেন, “২০২২-’২৩ এবং ২০২৩-’২৪ অর্থবর্ষে আবাসের একটি টাকাও দেয়নি কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রীকে বলব, শ্বেতপত্র প্রকাশ করুন।’’ তিনি আরও বলেছিলেন, ‘‘কত টাকা ১০০ দিনের কাজে দিয়েছেন, কত টাকা আবাসে দিয়েছেন, তার শ্বেতপত্র প্রকাশ করতে যদি না-ও পারেন, বিজেপির যে কোনও নেতা, কেন্দ্রীয় সরকারের যে কোনও অফিসারকে কলকাতায় পাঠাবেন। চ্যানেল, সঞ্চালক, সময় আপনি ঠিক করুন। দুধ কা দুধ, পানি কা পানি হয়ে যাবে।’’ এরপর অভিষেক উত্তরবঙ্গের ময়নাগুড়ির জনসভায় এই বিতর্কে বিজেপি নেতৃত্বের জন্য অপেক্ষা করেন কিন্তু বিজেপির কোনও নেতা অভিষেকের ময়নাগুড়ির সভায় আবাস ও ১০০ দিনের টাকা নিয়ে বিতর্কে অংশগ্রহণ করতে আসেননি। অভিষেক কিন্তু কেন্দ্রীয় এই দুই প্রকল্পের দেনা পাওনা নিয়ে প্রকাশ্য বিতর্কের জন্য অপেক্ষায় ছিলেন। এবার ফের আবাস ও ১০০ দিনের টাকা নিয়ে অভিষেক বিজেপিকে শ্বেতপত্র প্রকাশের কথা স্মরণ করিয়ে দিলেন।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved