‘২০১২ সালে নরেন্দ্র মোদি সীমান্তরক্ষীদের ক্ষমতা বৃদ্ধির বিরুদ্ধে মনমোহন সিংকে চিঠি কেন লিখেছিলেন?’, শুভেন্দুকে প্রশ্ন কুণালের

21
'২০১২ সালে নরেন্দ্র মোদি সীমান্তরক্ষীদের ক্ষমতা বৃদ্ধির বিরুদ্ধে মনমোহন সিংকে চিঠি কেন লিখেছিলেন?', শুভেন্দুকে প্রশ্ন কুণালের

মহানগর ডেস্ক: সম্প্রতি রাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকায় বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধির যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার, তার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার প্রস্তাব পাস হয়েছে বিধানসভায়। এই প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়েছিল মোট ১১২ টি এবং বিপক্ষে ভোট পড়েছিল মোট ৬৩ টি।

এই প্রস্তাব পাস করানোর পরই রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন,’বিধানসভায় এই বিষয়ে আলোচনার সময় তৃণমূলের সিনিয়র বিধায়ক এবং মন্ত্রীরা যেভাবে সীমান্তরক্ষীদের গালিগালাজ করছিলেন, ভারতীয় হিসেবে অস্বস্তি হচ্ছিল। আমি তখন ভাবছিলাম যে এই আলোচনাটি হয়ত কোনও ভারতীয় রাজ্যে নয়, আফগানিস্তান অথবা পাকিস্তানের কোনও রাজ্যে হচ্ছে।’

এমনকি তিনি জানিয়েছিলেন যে ,’১৮ তারিখ বিএসএফ অফিসে যাব। পদ্মফুল, মিষ্টি, রসগোল্লা নিয়ে যাব জওয়ানদের জন্য। তাঁদের বলব এতদিনে একটা কাজের কাজ হয়েছে। ৫০ কিমির বদলে এই এক্তিয়ার ৮০ কিমি পর্যন্ত বর্ধিত করা উচিত। মালদা ও মুর্শিদাবাদ দিয়ে ১০০ জন জঙ্গি ঢুকেছে। জম্মু- কাশ্মীর, অসমের মত এই রাজ্যেও তল্লাশির দরকার আছে।’

শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে এইসমস্ত মন্তব্যের বিরুদ্ধে এবার সুর চড়ালেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। বৃহস্পতিবার নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি টুইট করে বিরোধী দলনেতাকে একহাত নিলেন তিনি। সেই টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘ শুভেন্দু বিএসএফ ক্যাম্পে গিয়ে সস্তা নাটক করছে। ও আগে বলুক, ২০১২ সালে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী মোদিজি তখনকার প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে বিএসএফের ক্ষমতাবৃদ্ধির বিরুদ্ধে চিঠি দিয়েছিলেন কেন? কেন মোদিজি বলেছিলেন এটা যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোতে আঘাত? এর জবাব না দিয়ে নাটক বন্ধ করুক বিজেপি।’

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১২ সালের কংগ্রেসের শাসনকালে সীমান্তরক্ষীদের ক্ষমতা বৃদ্ধির বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন খোদ তৎকালীন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি সেই সময়ের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে এই বিষয়ে চিঠি লিখে নিজের অভিযোগও জানিয়েছিলেন তিনি। বিএসএফকে গ্রেফতারির ক্ষমতা দেওয়ার সিদ্ধান্তটিকে ‘রাজ্যের মধ্যে আরেকটি রাজ্য তৈরি’ বা ‘দ্বিতীয় রাষ্ট্র’ করার আরেকটি পদ্ধতিগত পদক্ষেপ হিসাবে অভিহিত করেছিলেন।