পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত কলকাতায় রাখা হবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত লস্কর জঙ্গিকে, নির্দেশ হাইকোর্টের

128

মহানগর ডেস্ক: তিহার জেল থেকে কলকাতায় নিয়ে আসা হল মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত লস্কর জঙ্গিকে। মৃত্যুদণ্ড পুনর্বিবেচনার জন্য আর্জি জানানো হয় কলকাতা হাইকোর্টে। আদালতে নিজেই সাওয়াল করেছে ওই লস্কর জঙ্গি। এই মুহূর্তে পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত ওই জঙ্গিকে কলকাতায় রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি জয়মাল্য বাগচী ও বিচারপতি বিভাস পট্টনায়কের ডিভিশন বেঞ্চ।

পরবর্তী শুনানি মের ১৭ তারিখ। ২০০৭-এ বনগাঁ সীমান্ত থেকে লস্কর-ই-তৈবার সক্রিয় সদস্য শেখ আব্দুল নাইমকে আটক করে বিএসএফ। তারপর গ্রেফতার করা হয় তাকে এবং সবশেষে নাইমকে ফাঁসিতে ঝোলানোর রায় দেয় বনগাঁ আদালত। ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় দোষী সাব্যস্ত করা হয় তাকে। এদিন সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন করেছে নাইম।

প্রসঙ্গত, প্রথমে পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে আস্তানা নেয় লস্কর-ই-তৈবার এই সদস্য। তারপর সেখান থেকে বেনাপোল-পেট্রোপোল হয়ে ভারতে ঢোকে। এরপর উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ সীমান্ত থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। সূত্র অনুযায়ী, লস্কর-ই-তৈবার এই জঙ্গির কাছ থেকে পাওয়া যায় ভুয়ো পরিচয়পত্র, লাইসেন্স সহ বিস্ফোরকও। তদন্ত শুরু করে সিআইডি।

তার বিরুদ্ধে নাশকতামূলক ষড়যন্ত্র, লস্কর-ই-তৈবার জন্য অর্থ সংগ্রহ সহ একাধিক আইপিসি ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। ২০১৭-তে তাকে ফাঁসির নির্দেশ দেয় বনগাঁর নিম্ন আদালত। সঙ্গে আরও কয়েকজনকেও শাস্তি দেওয়া হয়। এদিন কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে রাজ্য পুলিশের ডিজি ও ডিআইজি কারা-বিভাগকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত এই লস্কর জঙ্গিকে কলকাতায় রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।