বিকেলে খেতে চেয়েছিলেন চপ-মুড়ি চাউমিন, তারপরেই লেগে গিয়েছিল দাঁতে দাঁত

28

মহানগর ডেস্ক : পূর্ণ হয়নি শেষ ইচ্ছা। নিজের মুখে বলেছিলেন চপ-মুড়ি, চাউমিন। হাসপাতালের শয্যায় নিজের মুখে বলেছিলেন তাঁর এই ইচ্ছার কথা।

বৃহস্পতিবার আপামর বঙ্গবাসী যখন মেতেছিলেন আলোর উৎসবে। তখনই পাওয়া গিয়েছিল দুঃসংবাদ। চলে গিয়েছেন সুব্রত মুখার্জি। এসএসকেএম হাসপাতালেই ত্যাগ করেছেন শেষ নিঃশ্বাস। শেষ বাসনা অপূর্ণ রেখেই ত্যাগ করেছেন ইহলোকের মায়া।

সুব্রতবাবুর আইনজীবী মণিশঙ্কর মুখোপাধ্যায় সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, বিকেলে চপ-মুড়ি, চাউমিন খেতে চেয়েছিলেন। নিজের মুখেই বলেছিলেন সেই কথা। এরপরেই লেগে গিয়েছিল দাঁতে দাঁত। অবনতি হয় শারীরিক অবস্থার। নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বাথরুমে। সেখান থেকে ফিরে আসার পরেই হার্ট অ্যাটাক। আর খাওয়া হল না চপ-মুড়ি, চাউমিন।

৭৫ বছর বয়সে জীবনাবসান হল বঙ্গ রাজনীতির এই নক্ষত্রের। রাত ৯:২২ নাগাদ তাঁর মৃত্যু হয় বলে জানা গিয়েছে। শ্বাস কষ্টের সমস্যা নিয়ে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে ছিল উচ্চ রক্তচাপ। এছাড়াও ডায়াবেটিস, সিওপিডির সমস্যাতেও ভুগতেন সুব্রত মখার্জি। নভেম্বরের ১ তারিখে দু’টি স্টেন্ট বসানো হয়েছিল তাঁর দেহে। বৃহস্পতিবার সকালেই তাঁকে কার্ডিও ওয়ার্ড থেকে উডবার্নে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছেলেন তিনি। সন্ধ্যায় আচমকায় অবনত হয় তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি। চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা করতে পারেননি চিকিৎসকরা।