Leena Manimekalai’s controversy: তথ্যচিত্র ‘কালী’র পোস্টার নিয়ে বিতর্ক, ‘হিন্দু সমাজে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে’, দাবি সমাজকর্মীর

64

মহানগর ডেস্ক: দক্ষিণী টরন্টো-ভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাতা লীনা মানিমেকালাইয়ের (Leena Manimekalai) তৈরি করা তথ্যচিত্র, দেবী ‘কালী’র (Kali) পোস্টার সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে আসতেই, শুরু হয়েছে নতুন করে ধর্মীয় চাপানউতোর। হিন্দু দেবদেবীর ভাবা বেগে আগে আঘাত করা হচ্ছে বলে দাবি করেন বিশিষ্ট জনেরা। এ বিষয়ে সমাজ কর্মী রাহুল ইশ্বর (Rahul Easwar) সংবাদ সংস্থাকে বলেন, “এই পোষ্টারের মাধ্যমে হিন্দু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে এবং আমাদের দেব-দেবীর অবমাননা করছেন পরিচালিকা।”

আরও পড়ুন: বন্দুক হাতে তাণ্ডব! মুসে ওয়ালার ‘খুনি’র ভিডিও ভাইরাল

মাদুরাইতে জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণী চলচ্চিত্র নির্মাতা লীনা মানিমেকালাইয়ের টুইটারে প্রকাশ করা দেবী কালীর পোস্টারে দেখা গিয়েছে, কালি ঠাকুরের মত শ্যামলা গায়ের রং এবং নীল রঙের পোশাক পরিহিতা এক মহিলা ধূমপান করছেন। সঙ্গে পোস্টারটির পটভূমিতে এলজিবিটি সম্প্রদায়ের একটি পতাকাও দেখা গিয়েছে।

সংবাদ সংস্থাকে এদিন সমাজকর্মী রাহুল ঈশ্বর বলেন, “স্বাধীনতা আসে সংবেদনশীলতার মধ্যে দিয়ে, স্বাধীনতা আসে দায়িত্বের মাধ্যমে, আমরা সংবেদনশীল, শ্রদ্ধাশীল এবং দায়িত্বশীল নাহলে কখনওই পৃথিবীতে বাঁচতে পারব না। কালী পোস্টারের সঙ্গে সেটা করা হয়েছে, তা হল লীনা হিন্দু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে বিদ্বেষপূর্ণ পোস্টার তৈরি করেছেন। তিনি উদ্দেশ্যমূলকভাবে হিন্দুদের অন্যতম শ্রদ্ধেয় দেবী কালী মা’কে অবমাননা করছেন।”

তিনি আরও বলেন, “এই দেবী কালীর পোস্টারটি প্রকাশের দায়িত্বে থাকা আগা খান মিউজিয়াম কর্তৃপক্ষের উচিত এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে দেখা। মা কালী হোক, হজরত মহম্মদ, কোনও ধর্মের ব্যক্তিত্বকেই অসম্মান করা উচিত নয়। লীনা সেটা করেছে তা হল ঘৃণামূলক পোস্টার তৈরির মধ্যে দিতে হিন্দুদের হেও করা এবং আমাদের দেবতাদের অপমান করা। এটা একেবারেই অগ্রহণযোগ্য। আমি আশা করি আগা খান মিউজিয়াম এই পোস্টারটি সম্পর্কে ভেবে দেখবেন।”

এছাড়াও এদিন সমাজকর্মী রাহুল হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করার জন্য তথ্যচিত্র নির্মাতা লীনার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করার কথাও জানান। তিনি বলেন, “হিন্দুদের অনুভূতিতে আঘাত করার জন্য ওঁনার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা উচিত।”