PSG: গোল নেই মেসি-নেইমারের পায়ে, তবুও কষ্টার্জিত জয় পিএসজির

9
চোটে আক্রান্ত লিওনেল মেসি।

মহানগর ডেস্ক: অসুস্থতার কারণে স্কোয়াডেই ছিলেন না কিলিয়ান এমবাপ্পে। গোল পেলেন না দলের অন্য দুই মহাতারকা লিওনেল মেসি এবং নেইমারও। যদিও লিগ ওয়ানের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন লিলেকে ২-১ গোলে হারিয়েই মাঠ ছাড়ল পিএসজি।

পার্ক দে প্রিন্সেসে শুরু থেকেই জমে ওঠে লিগের শীর্ষ সারির এই দুই দলের লড়াই। কিন্তু ফিনিশিং দুর্বলতায় গোল পাচ্ছিল না কোনও পক্ষ। তবে ম্যাচের আধঘণ্টা পার হতে না হতেই অতিথি শিবিরের ঝলক। লিলে তারকা বুরাক ইলমাজের বাড়ানো বল স্রেফ দুর্দান্ত প্লেসমেন্টে পিএসজির জালে পাঠান জোনাথন ডেভিড।

প্রথমার্ধে গোল হয় এই একটিই। আর ডেভিডের করা সেই গোলেই টানা তৃতীয়বার পিএসজির বিপক্ষে জয়ের স্বপ্ন দেখছিল লিলে। এরই মধ্যে আবার সুখবর উড়ে আসে তাদের জন্য। চোট পেয়ে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠেই নামতে পারেননি মেসি। মাংশপেশীতে টান লাগায় পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো আর্জেন্টাইন তারকাকে নামানোর ঝুঁকি নেননি।

তারপরও কিন্তু হাল ছাড়েনি প্যারিস জায়ান্টরা। শেষ ৩০ মিনিট একের পর এক আক্রমণে তারা ব্যতিব্যস্ত করে তোলে লিলের রক্ষণভাগকে। ফলটাও পায় হাতেনাতে। ৭৪ মিনিটে ডি বক্সের বাঁ প্রান্ত থেকে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার দুর্দান্ত এক চিপ, উড়ন্ত শটে লিলের জালে পাঠান পিএসজির ডিফেন্ডার তথা অধিনায়ক মার্কুইনহোস। পিএসজির জয়সূচক গোলটি আসে ৮৮ মিনিটে নেইমার-ডি মারিয়ার যুগলবন্দিতে। নির্ধারিত সময়ের মিনিট দুয়েক আগে ডি বক্সে থাকা নেইমারের সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করেন ডি মারিয়া। এরপর লিলের ডিফেন্ডাররা কিছু বুঝে ওঠার আগে এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের নেওয়া বাঁ পায়ের শট খুঁজে নেয় জাল। এই গোলেই শেষ পর্যন্ত তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে পিএসজি।

এই জয়ে লিগ ওয়ানের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল পিএসজি। ১২ ম্যাচ শেষ ৩১ পয়েন্ট দলটির ঝুলিতে। এক ম্যাচ কম খেলে দুইয়ে থাকা লেন্সের সঙ্গে তাদের পয়েন্টের ব্যবধান ১০। লিলে এই হারে নেমে গিয়েছে ১১ নম্বরে। ১২ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট মাত্র ১৫।