‘জীবনে প্রথম মদ শুভেন্দুর বাবা খাইয়েছিল’, বিরোধী দলনেতাকে পাল্টা জবাব মদন মিত্রের

9

মহানগর ডেস্ক: মদন মিত্রকে প্রকাশ্যে মাতাল বলে কটাক্ষ করে ছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আর সেই মন্তব্যেরই বেলা গড়াতে না গড়াতেই উত্তর ছুড়লেন কামারহাটির বিধায়ক স্বয়ং নিজে। বললেন, তাঁর মদ্যপানের হাতে খড়ি খড়ি শুভেন্দুর বাবা শিশির অধিকারীর হাত ধরেই।

খড়্গপুরের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র সেখান থেকেই তিনি বিরোধী দলনেতার শুভেন্দু অধিকারীকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেছিলেন, ২৯৪টি আসনের যে কোনও জায়গায় তিনি লড়তে রাজি আছেন, যদি বিপক্ষে দাঁড়ান শুভেন্দু বাবু। আর সেই প্রশ্নের পাল্টা জবাবে নন্দীগ্রামের বিধায়ক, মদন মিত্রকে মাতাল বলে হেঁয়ালি করেন। তিনি বলেন, ‘একটা চিহ্নিত মাতালের কথার উত্তর দেওয়া খুব মুশকিল। ও পরিচিত মাতাল। পশ্চিমবঙ্গের লোক জানে।’

সেই প্রশ্নের জবাব দিতে দেরি করেননি মদন বাবুও। দেগঙ্গার একটি অনুষ্ঠান থেকে স্পষ্ট ভাষায় কামারহাটি বিধায়ক জানালেন, তাঁর হাতে খড়ি করিয়েছেন শুভেন্দুর বাবা শিশির অধিকারী। তিনি বলেছেন, “জীবনে প্রথম মদ খেয়েছিলাম শুভেন্দুর বাবার সঙ্গেই। কী যেন একটা ব্র্যান্ড খাইয়েছিলেন। আমরা তখন যাচ্ছিলাম কেশপুরের দিকে। কী একটা নাম বললেন যেন, শিবাস…ফিবাস হবে। শিশিরদা কী একটা মিশিয়ে দিয়ে বললেন, খাও। আমি তো খেয়ে বমি করে সব বের করেই দিয়েছিলাম।”

মূলত শিশির অধিকারীর বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থান স্পষ্ট। দীর্ঘ বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি বাড়ি থেকে বের হন না। মূলত শুভেন্দু বিজেপিতে যোগদানের পর এই তাঁর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।