গঙ্গাসাগর যাত্রীদের ৫ লক্ষ টাকা করে বীমা দেওয়ার ঘোষণা মমতার

8
west bengal news

 

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পুণ্য অর্জনের জন্য এককালের দুর্গম গঙ্গাসাগর আজ অনেকখানি সুগম। কিন্তু বিপদ কোথা থেকে কখন আসে তা কে বলতে পারে? অতীতের সেই দুর্ঘটনার কথা স্মরণে রেখেই সোমবার বড় ঘোষণা করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানিয়ে দিলেন, ১১ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত যে সকল পুন্যার্থীরা গঙ্গাসাগরে পুণ্যার্জনের জন্য যাবেন তাদের সকলকে ৫ লক্ষ টাকা করে জীবন বীমা দেওয়া হবে।

গঙ্গাসাগরে পুণ্য স্নানের জন্য ইতিমধ্যেই কোমর বাঁধতে শুরু করেছেন পুন্যার্থীরা। মেলা শুরুর আগে সোমবার গঙ্গাসাগরে উপস্থিত হল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে কপিলমুনির আস্রমে পুজোও দেন তিনি। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা বলেন, ‘গঙ্গাসাগরের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমানে এখানে অনেক থাকার জায়গা হয়েছে, তৈরি হয়েছে আশ্রমও।’ এরপরই, এ বছরের গঙ্গাসাগর যাত্রীদের জন্য বড় ঘোষণা করে মমতা বলেন, ১১ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত যে সকল পুন্যার্থীরা গঙ্গাসাগরে পুণ্যার্জনের জন্য যাবেন তাদের সকলকে ৫ লক্ষ টাকা করে জীবন বীমা দেবে সরকার। যাতে এখানে কেউ যদি কোনও রকম দুর্ঘটনার শিকার হন, সেক্ষেত্রে তাঁর পরিবার উপকৃত হবে।

এছাড়াও এদিন কপিল মুনির আশ্রমের সামনে জেএনইউ-র প্রসঙ্গ টেনে আনেন মমতা। বলেন, ‘আজ দীনেশ ত্রিবেদীর নেতৃত্বে জেএনইউতে একটি প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছিলাম আমরা। কিন্তু সেখানে ওদের ঢুকতে দেওয়া হয়নি। যারা আক্রান্ত হয়েছে আমরা তাদের পাশে রয়েছি।’ পাশাপাশি, সিএএ আইনের বিরুদ্ধে আগামী ৮ তারিখ বামেদের ডাকা বনধকেও সমর্থন করা হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা কিন্তু বনধের সমর্থন করছি না৷ কোন একটি রাজনৈতিক দল বনধ ডেকেছে৷ আমরা তাদের ইস্যুটাকে সমর্থন করছি৷ সেটা নিয়ে আমরা প্রত্যেকেই মিছিল-মিটিং করছি৷ যা যা করার, আমরা করছি৷ কিন্তু আমাদের অবস্থান, আমরা কোনও ববনধকে এই সমর্থন করি না৷ এটা আমাদের দিকেও না অন্যদিকেও না৷ কারণ দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এমনিতেই ভেঙে পড়েছে৷ তার মধ্যে একটা দিন বন্ধ হলে লোকের সমস্যা হয়৷ কাজেই কোনওরকম বনধ যাতে না হয়, এলাকায় যাতে শান্তিপূর্ণ থাকে সেটা প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে হবে৷ আমরা ওদের ইস্যুকে সমর্থন করি৷ কিন্তু অন্য পদ্ধতিতে, আমরা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে শান্তিপূর্ণ পদ্ধতিতে আন্দোলন চালিয়ে যাব৷’’