গোয়াকে কেন্দ্র করে সম্পর্কে ফাটল ধরছে মমতা-কেজরিওয়ালের!

28

নিজস্ব প্রতিনিধি: একসময় তাঁদের সম্পর্ক ছিল দিদি-ভাইয়ের। আর এখন অহি-নকুলের। গোয়াকে কেন্দ্র করে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আম-আদমি পার্টির নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সম্পর্কে যে ফাটল ধরেছে, তা স্পষ্ট হচ্ছে ক্রমেই। গোয়ার রাশ কার হাতে যাবে, তা পরের কথা। তবে গোয়াই যে এই দুই অঙ্গরাজ্যের মুখমন্ত্রীর সম্পর্কে ফাটল ধরিয়েছে, তা বলাই বাহুল্য।

বুধবার গোয়ায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন আম-আদমি পার্টি সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনি বলেন, আজকের দিনে দাঁড়িয়ে তৃণমূলের কাছে গোয়ায় এক শতাংশ ভোটও নেই। সবে তিন মাস আগে গোয়ায় পা রেখেছে তৃণমূল। গণতন্ত্র এভাবে চলে না। কেজরিওয়াল বলেন, গণতন্ত্রে মানুষের জন্য কাজ করতে হয়। পরিশ্রম করতে হয়। এমনি এমনি কোনও কিছু হয় না। আপনাদের চোখে তৃণমূল অনেক ওপরে থাকতে পারে। কিন্তু আমি মনে করি গোয়ায় তৃণমূল প্রতিযোগিতায়ও নেই।

এদিন কংগ্রেস এবং বিজেপিকেও এক হাত নেন কেজরিওয়াল। বলেন, কংগ্রেস-বিজেপি সব দল মিলে গোয়াকে লুট করেছে। গোয়ার বার্ষিক বাজেট ২২ হাজার কোটি টাকা। সেই সব টাকা সব রাজনৈতিক দলের নেতাদের পকেটে গিয়েছে। আমারা যদি সরকারে আসি, আপনারা দেখবেন এক মাসের মধ্যে পরিস্থিতি বদল হতে শুরু করেছে। গোয়াবাসীর মন জয়ে কর্মসংস্থান, বেকারভাতা, জল, বিদ্যুতের পাশাপাশি দুর্নীতিমুক্ত সরকারের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন কেজরিওয়াল।

বড়দিনের সময়টা তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সংগঠনের কাজ দেখবেন গোয়ায়। কেজরিওয়াল অবশ্য সেই সময় থাকছেন না। গোয়া রাজনীতিতে নতুনভাবে অংশগ্রহণ করেছে এই দুই দল। আম আদমি পার্টি ভাল ভিত তৈরি করে ফেলেছে। সংগঠন গড়ছে তৃণমূলও। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, গোয়াকে কেন্দ্র করেই মমতা-অরবিন্দের সম্পর্কের ফাটল বেড়ে হতে পারে কয়েক যোজন।