নৈহাটি বিস্ফোরণ: গঙ্গাপাড়ের দুই জেলায় বহু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত, ক্ষতিপূরণের আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর

27
kolkata news

Highlights

  • বাজি নিষ্ক্রিয় করতে গিয়ে নৈহাটি ও চুঁচুড়ায় ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটে গিয়েছে
  • বহু বাড়িতে দেখা দেয় ফাটল
  • ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘরগুলি মেরামতের ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী


নিজস্ব প্রতিনিধি, নৈহাটি:
বাজি নিষ্ক্রিয় করতে গিয়ে নৈহাটি ও চুঁচুড়ায় ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটে গিয়েছে। কেঁপে ওঠে গঙ্গার দুই পাড়ের এলাকা। ভেঙে পড়ে বহু বাড়ির কাচ। বহু বাড়িতে দেখা দেয় ফাটল। এদিন বারাসতে মিছিল করার সময় সেই কথা জানতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরে ২৪তম যাত্রা উৎসবের উদ্বোধনের মঞ্চ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘরগুলি মেরামতের ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেন তিনি। তিনি জানান, জেলাশাসকের মাধ্যমে এই ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

কয়েকদিন আগে ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছিল নৈহাটির দেবক। অবৈধ বাজি কারখানায় বিস্ফোরণে মারা যান পাঁচজন। তারপর আবার কেঁপে উঠল সেই নৈহাটি। এবারও হল বিস্ফোরণ। তবে এবার এই বিস্ফোরণ হল পুলিশের উপস্থিতিতে। বাজেয়াপ্ত বাজি নিষ্ক্রিয় করতে গিয়ে কেঁপে উঠল এলাকা। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে, গঙ্গার অন্যপাড়ে চুঁচুড়ায় তা অনুভূত হয়। সেখানে চন্দননগর কমিশনারেটের কমিশনার হুমায়ুন কবিরকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন লোকজন। দাবি করেন ক্ষতিপূরণের।

গোটা নৈহাটি এলাকায় কেঁপে ওঠে বাড়ি। ভেঙে যায় জানালার কাচ। ফের আতঙ্কিত হয়ে পড়ে এলাকার লোকজন। পড়ে যায় বাড়ির জিনিসপত্র। এলাকার লোকজনের দাবি, অপরিকল্পিত ভাবে পুলিশ এই বাজি নিষ্ক্রিয় করায় এমন বিপত্তি ঘটেছে। যার ফলে ক্ষিপ্ত হয়ে পড়ে এলাকার লোকজন। রাস্তায় নেমে ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন তাঁরা। এলাকার মানুষ এতটাই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন যে, পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। গোটা এলাকা থমথমে হয়ে আছে।

কয়েকদিন ধরে নৈহাটির দেবক-সহ পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে বিপুল প্রচুর পরিমাণ নিষিদ্ধ বাজি ও বারুদ বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ৷ সেই বাজি ও বারুদ নিষ্ক্রিয় করতে গঙ্গার পাড়ে নৈহাটির রামঘাটে নিয়ে যায় পুলিশ৷ বাজি নিষ্ক্রিয় করতে গিয়েই ঘটে যায় বিপত্তি৷ বিস্ফোরণের প্রবল শব্দ কেঁপে ওঠে বিস্তীর্ণ এলাকা৷ এমনকী বিস্ফোরণের জেরে গঙ্গার ওপারেও চুঁচুড়ায় বহু বাড়ির কাচ ভেঙে যায়৷ দেখা দেয় ফাটল। এভাবে বাজি নিষ্ক্রিয় করার পদ্ধতিতে ক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকাবাসী৷ পুলিশের বিরুদ্ধে পথে নেমে শুরু হয় বিক্ষোভ৷ নৈহাটিতে পুলিশের দুটি গাড়িতে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় জনতা। ঘটনার পর পুলিশ এলাকা ছেড়ে পালায় বলে অভিযোগ।