Home Featured MITHUN CHAKRABORTY: ‘তৃণমূলের সকলে চোর নয়’ স্বীকার করে নিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

MITHUN CHAKRABORTY: ‘তৃণমূলের সকলে চোর নয়’ স্বীকার করে নিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

by Silpika Chatterjee
mithun chakraborty all ,tmc worker not thief,bjp,sukanta majumder

মহানগর ডেস্কঃ এমনটাও ভাবা যায়! তৃণমূলের সকলে চোর নয়, এমনটাই দাবি ছিল রাজ্যের শাসকদলেরই একাংশের। এবার সেই দাবিকেই মান্যতা দিলেন বিজেপি(BJP) নেতা এবং অভিনেতা(ACTOR) মিঠুন চক্রবর্তী (MITHUN CHAKRABORTY)। আজ্ঞে হ্যাঁ। এটাই বাস্তব। তবে তৃণমূল সমর্থকদের খুশি হওয়ার এখনই কিছু হয়নি। প্রসঙ্গটা জানতে পারলেই আপনার উৎসাহ,উদ্দীপনা সব ফানুসের মত উড়ে যেতে পারে।

তৃণমূলের(TMC) অনেকেই বিজেপির(BJP) সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে বলে দাবি করেন মিঠুন চক্রবর্তী। আর সেই প্রসঙ্গেই তিনি বলেন, তৃণমূলের সকলে চোর নয়। যারা ভাল তাঁদের অনেকেরই দম বন্ধ হয়ে আসছে। তাঁদেরই একটা অংশ বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলে দাবি মিঠুন চক্রবর্তীর। মঙ্গলবার হুগলির(HOOGHLY) চুঁচুড়ায়(CHINSURAH) সাংগঠনিক বৈঠকে যোগ দিতে এসে এমনই দাবি করলেন মিঠুন চক্রবর্তী।

এদিন মিঠুন চক্রবর্তী ওই বৈঠকে জানান, তাঁর সঙ্গে তৃণমূলের ২১ জোন সরাসরি যোগাযোগ রাখছেন। পাশাপাশি তিনবি দাবি করেন তৃণমূলের বেশ কিছু বিধায়ক সরাসরি দিল্লির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। যাঁরা তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন তাঁরা সকলেই দুর্নীতিমুক্ত বলে দাবি করেছেন মিঠুন চক্রবর্তী। তিনি জানান, যদিও বিজেপির পক্ষ থেকে তৃণমূলের কাউকেই দলে নেওয়া হবে না বলে দাবি করা হয়েছে। তবে তিনি দলকে বুঝিয়েছেন। যাঁরা যোগাযোগ রাখছেন তাঁদের সকলকে নয় কেবলমাত্র ভালদেরই নেওয়া হবে। তৃণমূলের যাঁরা খারাপ তাঁদের জন্য ‘পচা আলু’ শব্দের উল্লেখ করে তিনি জানান, ‘পচা আলু’ কে কোনওভাবেই দলে নেওয়া হবে না। এর আগে মিঠুন চক্রবর্তী জানিয়েছিলেন তৃণমূলের ৩৮ জন দলে যোগ দেবেন। হঠাৎ সংখ্যাটা কমে যাওয়া নিয়ে ধোঁয়াশা রাজনৈতিক মহলে।

তবে ২১ বা ৩৮ এই সব সংখ্যাকে পিছনে ফেলে দিয়েছে গেরুয়া শিবিরের রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তাঁর দাবি তৃণমূলের ৪১ জন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। সুকান্ত মজুমদারের দাবি, মিঠুন চক্রবর্তীর কাছে ২১ জনের নাম থাকলে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে ৪১ জনের কম নাম থাকা সম্ভব নয়। পাশাপাশি এদিন সুকান্ত মজুমদার শিশির অধিকারীর রাজনৈতিক অবস্থানও স্পষ্ট করে দেন। তাঁর স্পষ্ট দাবি শিশির অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেননি।

You may also like

Leave a Comment