‘শান্তি চায় ভারত, দেশের সীমান্ত রক্ষায় সমর্থ সেনা’, চিনকে পাল্টা রাজনাথের

8
national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকের পরে বেজিং বিবৃতি জারি করে সীমান্তে বেড়ে চলা উত্তেজনার জন্য ভারতকেই দায়ী করে৷ একইসঙ্গে বিবৃতিতে জানানো হয় নিজেদের ভুখণ্ডের এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বে না তারা৷ চিনের এহেন বিবৃতির পরই রাজনাথ সিংয়ের দফতর থেকে জানানো হয়েছে, সীমান্তে শান্তি বজায় রাখার জন্য কথাবার্তা চালিয়ে যেতে প্রস্তুত ভারত। তবে সেইসঙ্গে দেশের সীমান্ত রক্ষায় সেনা যথেষ্ট সমর্থ বলেই জানিয়েছেন তিনি।

শনিবার বেজিং ভারতকে দায়ী করে এই বিবৃতি দেওয়ার পর প্রতিরক্ষামন্ত্রকের তরফ থেকে একগুচ্ছ টুইট করা হয়৷ প্রথম টুইটটি লেখা হয়, “প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সেনা সম্পূর্ণভাবে সরিয়ে নিয়ে শান্তি স্থাপন করার জন্য দুই দেশের উচিত কূটনৈতিকভাবে ও সেনা স্তরে নিজেদের মধ্যে কথাবার্তা চালিয়ে যাওয়া।”

একটি টুইটে প্রতিরক্ষামন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, “প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতি দায়িত্বের সঙ্গে সামলানো উচিত। সীমান্তে উত্তেজনা ছড়াতে পারে এমন কোনও পদক্ষেপ দু’দেশের কারোরই করা উচিত নয়।”

তৃতীয় টুইটে জানানো হয়, “প্রতিরক্ষামন্ত্রী পরামর্শ দিয়েছেন এই কাজে ভারতের সঙ্গে চিনেরও যোগ দেওয়া উচিত। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দ্বিপাক্ষিক চুক্তি ও নিয়ম মেনে প্যাঙগং লেক- সহ সব সংঘাতের এলাকা থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়া উচিত দুই দেশের।”

আরও একটি টুইটে চিনের সেনার ক্ষমতার পাল্টা দিয়ে লেখা হয়, “প্রতিরক্ষামন্ত্রী স্পষ্ট ভাষায় জানাচ্ছেন, ভারতীয় সেনা সীমান্ত মোকাবিলায় সব সময় যথেষ্ট দায়িত্ব নিয়েছে। কিন্তু সেইসঙ্গে এই বিষয়ও মাথায় রাখা উচিত যে দেশের সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা বজায় রাখতে সক্ষম আমাদের সেনা।”

প্রসঙ্গত, এদিন চিনের তরফে জারি করা বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “ভারত ও চিন সীমান্তে উত্তেজনার কারণটা পরিষ্কার। এর জন্য সম্পূর্ণভাবে দায়ী ভারত। চিন নিজেদের জমির এক ইঞ্চিও ছাড়বে না।”