Nadia: একি ছবি! কলেজ অধ্যক্ষের চেয়ারে বসে তৃণমূল বিধায়ক?

123
Nadia: একি ছবি! কলেজ অধ্যক্ষের চেয়ারে বসে তৃণমূল বিধায়ক?
কলেজের অধ্যক্ষের চেয়ারে বসে রয়েছেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক

মহানগর ডেস্ক: কলেজের অধ্যক্ষের চেয়ারে বসে রয়েছেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক (Tmc MLA)। তাহলে অধ্যক্ষ কোথায়? একই ঘরে সোফায় মধ্যে বসে রয়েছেন কলেজ অধ্যক্ষ, এমনটাই ছবি ধরা পরল নদিয়ার (Nadia) শান্তিপুর কলেজে (Shantipur Collage) । ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। বঙ্গ বিজেপির (BJP) তরফ থেকে তীব্র নিন্দা করা হয়েছে তৃণমূল শাসনের।

নদিয়ার শান্তিপুরের তৃণমূল বিধায়ক ব্রজকিশোর গোস্বামীকে দেখা গেছে শান্তিপুর কলেজের অধ্যক্ষ চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের আসনে। এমনই ছবি শেয়ার করা হয়েছে বঙ্গ বিজেপি-র অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। ছবিটির সত্যতা যাচাই করতে গিয়ে অধ্যক্ষকে এই ঘটনার কারণ জিজ্ঞেস করা হলে, তিনি জানান, সেই দিন কোনও কারণে কাজ করছিল না তাঁর ঘরের এসিটা। কিন্তু সেই দিনই অধ্যক্ষের সঙ্গে কলেজে দেখা করতে গিয়ে গরমে যথারীতি কষ্ট পাচ্ছিলেন বিধায়ক। তাঁকে দেখে নিজের আসন ছেড়ে দিয়ে সামনে থাকা স্ট্যান্ড ফ্যানের হাওয়া সামনে বসতে অনুরোধ করেন অধ্যক্ষ। তার জন্য অধ্যক্ষের আসনে বসেছিলেন বিধায়ক।

আরও পড়ুন: রক্তাক্ত কাবুল, মসজিদে পরপর বিস্ফোরণে মৃত ১৬

এদিকে কিশোর গোস্বামীকে কেন তিনি বসেছিলেন অধ্যক্ষের আসনে? জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, আমি নিজে অধ্যক্ষের আসনে বসিনি। আমাকে অধ্যক্ষ এবং কলেজের অন্যান্যরা অনুরোধ করেছিলেন ওই আসনে বসতে। তাই বসেছিলাম। এক্ষেত্রে আমি কারোর ক্ষমতাচ্যুত করতে চাইনি। এখানে আমার কোন দোষ নেই। কেউ যদি স্বেচ্ছায় তাঁর আসনে যদি আমাকে বসতে বলেন, তাহলে আমার কী করার?

তবে এই ছবিটি ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই বঙ্গ বিজেপির তরফ থেকে নিন্দা করা হয়েছে। প্রতিটা নেতা-নেত্রী এই ছবিকে ঘিরে নিজস্ব ঘৃণ্য মন্তব্য পোষণ করেছেন। গেরুয়া শিবিরের নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘এটাই তো তৃণমূলের সংস্কৃতি। তৃণমূলের জমানায় নেতা-মন্ত্রী-গুন্ডা-বদমাস পুলিশের চেয়ারে বসে থাকে। আর পুলিশ টেবিলের তলায় লুকায়। এই ঘটনা প্রথম নয়। স্কুল কলেজগুলোকে তো তৃণমূল নেতারা পৈত্রিক সম্পত্তি ভেবে ব্যাবহার করে।’