সেই নগেন্দ্র এলেন বীরভূমে, ভোটের মুখে ফের বদলি ৪ পুলিশ আধিকারিক

6
kolkata news

নিজস্ব প্রতিবেদন : নির্বাচনের মুখে ফের বদলি চার পুলিশ আধিকারিককে। সরানো হল বীরভূমের এসপি, পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার, বোলপুরের এসডিপিও এবং আসানসোল দুর্গাপুরের পুলিশ কমিশনারকে। আজ, সোমবারই এ সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন।

আট দফায় ভোট হচ্ছে এ রাজ্যে। এর আগেও বদল করা হয়েছে বিভিন্ন জেলার পুলিশ আধিকারিককে। সোমবার ফের হল বদল। বৃহস্পতিবার ষষ্ঠ দফায় ভোট হবে কাটোয়া, কেতুগ্রাম সহ পূর্ব বর্ধমানের আটটি আসনে। আসানসোল দুর্গাপুরে হবে সপ্তম দফায় ভোট। আর অষ্টম তথা শেষ দফায় নির্বাচন হবে বীরভূমে। তার আগেই সরানো হল চার পুলিশ কর্তাকে।

সশস্ত্র পুলিশের সেকেন্ড ব্যাটেলিয়নের আধিকারিক নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী। দ্বিতীয় দফার ভোটে তিনি নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপধ্যায়ের সঙ্গে বচসায় জডিয়ে পড়েছিলেন। বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীর মুখের ওপর বলেছিলেন, ম্যাডাম খাঁকি উর্দিতে দাগ নেব না। এমন অশান্তি আর হবে না। এহেন নগেন্দ্রকে বোলপুরের পুলিশ সুপারের দায়িত্ব দিয়েছে কমিশন। এদিনই সরানো হয়েছে পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়কে। তাঁর স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন অজিতকুমার সিং। বদলি করা হয়েছে আসানসোল দুর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার সুকেশ জৈনকে। সরানো হয়েছে বীরভূমের পুলিশ সুপার মিরাজ খালিদকে। তাঁর জায়গায়ই বসানো হয়েছে নগেন্দ্রকে।

নির্বাচনের দিন অশান্ত হতে পারে বীরভূম। এই জেলায় বিরোধীদের প্রচারে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বারে বারে। জেলার বিভিন্ন জায়গায় কার্যত প্রচার না করেই ফিরে যেতে হয়েছে বিরোধীদের। তাই নগেন্দ্রর মতো একজন দোর্দণ্ডপ্রতাপ আইপিএস আধিকারিককে জেলার দায়িত্ব দিয়ে কমিশন অশান্তি এড়াতে চাইছে বলেই ধারণা রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।