প্রজাতন্ত্র দিবসেই প্রদর্শিত হল নেতাজির ট্যাবলো, বাংলা রাজপথে দেশনায়ক পেলেন সম্মান

64

মহানগর ডেস্ক: আজ ২৬ জানুয়ারি। দেশ জুড়ে পালিত হচ্ছে প্রজাতন্ত্র দিবস। রাজধানীর রাজপথে বড় করে পালিত হচ্ছে অনুষ্ঠান। সেখানে নানা রাজ্যের প্রস্তুত করার ট্যাবলো প্রদর্শিত হয়েছে। এদিকে বাংলা রেড রোডেও শুরু হয়ে গিয়েছে অনুষ্ঠান। সেখানে উপস্থিত আছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহ একাধিক বিশিষ্ট জন। তবে বাংলার প্রস্তুত করা নেতাজির ট্যাবলো প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির রাজপথে না চললেও, চলল বাংলা রাজপথে। কলকাতার রেড রোডে প্রদর্শিত হল নেতাজির ট্যাবলো।

রেড রোডে অনুষ্ঠানে এদিন পতাকা উত্তোলন করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তারপর মুখ্যমন্ত্রী ও রাজ্যপালের মধ্যেই সৌজন্য বিনিময় দেখা যায়। কোভিড বিধির কারণে নির্দিষ্ট করা হয়েছে অনুষ্ঠানের আসন সংখ্যা। অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন সর্বাধিক ৬০ জন সদস্য। এছাড়াও মুখ্যসচিব, বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বরাষ্ট্রসচিব উপস্থিত ছিলেন। সাধারণ মানুষের এক্ষেত্রে প্রবেশের অনুমতি ছিল না।

ট্যাবলো নিয়ে কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে বিতর্কের অন্ত নেই। বাংলার ট্যাবলো বাতিল নিয়ে ভৎসনার মুখে পড়তে হয়েছিল কেন্দ্র সরকারকে। রাজ্যের বিভিন্ন নেতা-মন্ত্রীরা ইচ্ছাকৃতভাবে কেন্দ্রে তরফ থেকে বাংলার ট্যাবলো বাতিল হয়েছে বলে মন্তব্য করেন। যদিও তারপর নবান্নের তরফ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল, প্রদর্শিত হতে চলেছে বাংলার ট্যাবলো। তবে দিল্লির রাজপথে না হলেও বাংলা রাজপথের অনুষ্ঠানে দেখা মিলবে ট্যাবলোর।

আর সেই ঘোষণাকেই সত্যি করে এদিন সকালে প্রদর্শিত হল দেশনায়ক নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ট্যাবলো। নেতাজিকে সম্মান দিতে প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন প্রদর্শিত হল তাঁর বিশেষ ট্যাবলো। তাই প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে রেড রোডে মুড়ে ফেলা হয়েছে ঘোর নিরাপত্তা ব্যবস্থায়। বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছে কলকাতা পুলিশ। রেড রোডকে ১১টি জোনে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি জোনের দায়িত্বে থাকবেন একজন ডেপুটি কমিশনাররা। জোনগুলিকে ভাঙা হচ্ছে কয়েকটি সেক্টরে। যার দায়িত্বে থাকবেন অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার।

এছাড়াও রেড রোডে থাকছে ৫ টি বাঙ্কার ও কমান্ডো বাহিনী। থাকছে ৫টি ওয়াচ টাওয়ার। নিরাপত্তায় মোতায়েন থাকবেন হাজারের বেশি পুলিশ কর্মী। গোটা কলকাতা জুড়ে মোতায়েন থাকবেন ৫ হাজারের বেশি পুলিশ। থাকবে HRFS-এর ১২টি দল, ৩টি ক্যুইক রেসপন্স টিম।