New Planet : খোঁজ মিলল ২৮ হাজার আলোকবর্ষ দূরে এক নতুন গ্রহের

35
খোঁজ মিলল ২৮ হাজার আলোকবর্ষ দূরে এক নতুন গ্রহের

মহানগর ডেস্ক : এতো বিশাল এই ব্রহ্মাণ্ড আমাদের। অজস্র গ্রহ নক্ষত্র নিয়ে তৈরি হয়েছে আমাদের এই ছায়াপথ,যার নাম মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি। তবে যে গ্রহের খোঁজ মিলেছে সে অন্য এক গ্যালাক্সির। নাসার পাঠানো চন্দ্র এক্সরে তুলে এনেছে সেই ছবি।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন পৃথিবী থেকে প্রায় ২৮ হাজার আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত এম ৫১ (M51)। যা রয়েছে ওর্য়ালপুল গ্যালাক্সিতে। হার্ভার্ড স্মিথহোসেন সেন্টারের এক বিজ্ঞানী জানিয়েছেন,’ আমরা আমাদের সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করছি ওই নতুন ছায়াপথের গ্রহ সম্পর্কে খোঁজ নেওয়ার।’ আপাতত ওই গ্রহের ছবি হাতে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। টেলিস্কোপের মাধ্যমে খতিয়ে দেখা হচ্ছে আর কোনও নতুন গ্রহের উপস্থিতি রয়েছে কিনা তার আশেপাশে। এবং অন্যান্য আরও যে তিনটি গ্যালাক্সি রয়েছে সেখানেও কোনও গ্রহের সন্ধান রয়েছে কিনা। থাকলেও সেগুলিতে প্রাণের অস্তিত্ব থাকতে পারে কিনা।

আবিষ্কৃত তিনটি গ্যালাক্সি

বহির্বিশ্বে এখনও পর্যন্ত মোট চারটি গ্যালাক্সির খোঁজ মিলেছে। যার মধ্যে একটি হল মিল্কিওয়ে। অর্থাৎ আমরা যে ভূমন্ডলের মধ্যে বসবাস করি। ছাড়াও রয়েছে আরো তিনটে গ্যালাক্সি। যাদের নাম হল ওর্য়ালপুল গ্যালাক্সি, পিনহুইল গ্যালাক্সি, সম্বরেরো গ্যালাক্সি। নাসার পাঠানো চন্দ্র এক্সরের মাধ্যমে আপাতত আবিষ্কার করা গিয়েছে এই তিনটি ছায়াপথ। এবং চন্দ্র এক্স-রের মাধ্যমে উঠে এসেছে ওই নতুন গ্রহের ছবি। এই নতুন গ্রহে আদৌ প্রাণের সঞ্চার রয়েছে কিনা তা নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

১৯৯২ সালে বিজ্ঞানীদের কাছে প্রথম খোঁজ মেলে ছিল আমাদের ছায়াপথের বাইরে রয়েছে আরও একটি ছায়াপথ। তখন থেকেই পরীক্ষা শুরু করেছিলেন নাসার বিজ্ঞানীরা। নতুন গ্রহ নিয়ে ইতিমধ্যেই রহস্যের দানা বেঁধেছে বিজ্ঞানীদের মনে। কেউ বলছেন সেটি এক উজ্জ্বল নক্ষত্র আবার কেউ বলছেন সেটি অরবিটের কোনও ব্ল্যাক হোল।

New Planet