তেলেঙ্গানার নতুন সেক্রেটারিয়েট ভবনে তৈরি হবে মন্দির-মসজিদ-গির্জা, জানালেন কেসিআর

43
kolkata news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: তেলেঙ্গানার নতুন সেক্রেটারিয়েট ভবনে তৈরি করা হবে মন্দির, দুটি মসজিদ ও গির্জা, এমনটাই জানালেন সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। তিনি এটিকে ‘গঙ্গা যমুনা তেহজিব’ (হিন্দু-মুসলিম সংস্কৃতির মেলবন্ধন) বলে আখ্যা দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, প্রতিটি উপাসনা গৃহের শিলান্যাস একই দিনে করা হবে।

সম্প্রতি এই নিয়ে প্রগতি ভবনে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যের মুসলিম কমিউনিটির বর্ষীয়ান নেতারা। পুরনো সেক্রেটারিয়েট ভবনে দুটি মসজিদ ও একটি মন্দির ছিল। ওই পুরনো ভবন ভাঙা হলে, মন্দির ও মসজিদগুলিও ভাঙা হয়। সেই মন্দির ও মসজিদগুলি যাতে নতুন সেক্রেটারিয়েট ভবনে তৈরি করা হয় সেই নিয়েই মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করেন মুসলিম নেতারা।

কেসিআর এই প্রসঙ্গে জানান, ‘সরকার দুটি মসজিদ তৈরি করবে, প্রতিটি আয়তনে ৭৫০ বর্গফুট হবে। তাতে একটি ইমাম কোয়ার্টার থাকবে। মসজিদগুলি তৈরি হওয়ার পর তা রাজ্য ওয়াকফ বোর্ডের হাতে তুলে দেওয়া হবে। একই ভাবে ১৫০০ বর্গ ফুটের একটি মন্দির তৈরি করা হবে। এছাড়া যেহেতু রাজ্যে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা বাস করেন এবং তাদেরও দাবি রয়েছে তাই একটি নতুন গির্জাও তৈরি করা হবে।’

এছাড়া মুসলিম শিশুদের জন্য একটি অনাথালয় তৈরির কাজ প্রায় শেষ হয়ে এসেছে এবং সেখানে আরও ১৮ কোটি টাকা দেওয়া হবে বলে জানান কেসিআর। এছাড়া হায়দরাবাদে আন্তর্জাতিক মানের একটি ইসলামিক সেন্টার তৈরি করা হবে। পাশাপাশি, শহরের একাধিক জায়গায় কবরস্থান তৈরি করা হবে। ‘আমরা রাজ্যের দ্বিতীয় সরকারি ভাষা হিসেবে উর্দুকে মান্যতা দিচ্ছি এবং এই ভাষার উন্নয়ন ও রক্ষার জন্য নানাবিধ প্রচেষ্টা করা হবে। রাজ্যে হিন্দু-মুসলিম ঐক্য গড়ে তোলা হবে’, জানান কেসিআর।