North Bengal: তিস্তায় জারি রেড অ্যালার্ট, একনাগাড়ে বৃষ্টিতে ফাটল নদীর পার্শ্ববর্তী এলাকায়

93
North Bengal: তিস্তায় জারি রেড অ্যালার্ট, একনাগাড়ে বৃষ্টিতে ফাটল নদীর পার্শ্ববর্তী এলাকায়

মহানগর ডেস্ক: লাগাতার বৃষ্টিতে নাজেহাল অবস্থা পাহাড়ের (North Bengal) । ইতিমধ্যেই তিস্তার (Teesta river) জল ছাড়া নদীর পাড়ের সংরক্ষিত এবং সংরক্ষিত এলাকায় দেখা দিয়েছে ফাটল। টানা রতভোতের বৃষ্টিতে ময়নাগুড়ির দোমহনী থেকে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত এলাকার অবস্থা আশঙ্কাজনক হয়ে উঠেছে। তিস্তার গোটা এলাকায় জারি লাল সতর্কতা (Red Alert)। ওদিকে, সিকিম এবং ভুটানে চলছে অবিরাম বৃষ্টি। ভেসে গিয়েছে গোটা অসম।

আরও পড়ুন: কয়লা পাচার কাণ্ডে নতুন মোড়, সিবিআইয়ের বিরুদ্ধে দায়ের FIR

একদিকে, লাগাতার বৃষ্টিতে ভয় দানা বেঁধেছে শিলিগুড়ি থেকে শুরু করে পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের। বিপদসীমার ওপর থেকে তিস্তার বয়ে যাওয়ায়, অবশেষে মঙ্গলবার বাধ্য হয়ে তিস্তা ব্যারেজ থেকে জল ছাড়া হয়েছে প্রায় ২২৪৭ কিউমেক। ফলে নতুন করে আতঙ্ক বেড়েছে তিস্তা পাড়ের বাসিন্দাদের। ওই এলাকার একাধিক বাসিন্দারা আতঙ্কে ঘর ছাড়তে শুরু করেছে। ওদিকে, আবহাওয়া দফতরের তরফে আগামী চার – পাঁচ দিন উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনার কথা জানানো হয়েছে। যার ফলে কোনও মতেই ভয় কাটছে না এলাকার মানুষদের। তিস্তাপারের বেশ কিছু এলাকায় নতুন করে দেখা দিয়েছে ফাটল। দ্রুত মেরামতির কাজ শুরু করতে তৎপর প্রশাসন।

এছাড়াও নতুন করে আতঙ্ক ধরাচ্ছে জলঢাকা নদী। আর তার জেরেই জলঢাকা নদীর অসংরক্ষিত এবং সংরক্ষিত এলাকাতেও হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে। ওদিকে রাতভোর বৃষ্টিতে জলমগ্ন শিলিগুড়ি শহর। প্রশাসনের তরফ থেকে খোলা হল কন্ট্রোল রুম। তবে প্রশাসনের তৎপরতায় আপাতত জল নেমে গিয়েছে। শুধুমাত্র শিলিগুড়ি পুরসভার ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে এখনও জমে রয়েছে জল। স্থানীয়দের অভিযোগ, এলাকার জল নিকাশি ব্যবস্থা ঠিক না থাকায় প্রতিবারের মতো এবারও জল জমে রয়েছে। এমনকি বেশকিছু বাড়িতে ঢুকে গিয়েছে জল। তৃণমূল শাসিত পুরসভার প্রতি ক্ষোভে ফুঁসছেন এলাকার মানুষ।