Subrata Mukherjee death: ‘ক্যান্টিন তো করলে খাওয়াবে না?’, সুব্রতর সেই আবদার আজও মনে পড়ে টুটুর

47

মহানগর ডেস্ক: প্রয়াত হয়েছেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। রাজনৈতিক মহলে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তবে শোক যে শুধু রাজনীতির ময়দানে আবদ্ধ রয়েছে তা কিন্তু মোটেও নয়। কলকাতার ময়দানও ছিল সুব্রতবাবুর খুব কাছের। আদ্যপান্ত মোহনবাগানী হিসেবেই তাঁকে লোকে চিনত।

প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালে ইতালিতে ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। তখন সেখানে উপস্থিত ছিলেন সুব্রত। মোহনবাগানের জার্সি গায়ে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো দেখতে যেতেন তিনি। দার্জিলিং এ গিয়ে শুধু মোহনবাগানের খেলা দেখবেন‌ বলে সংক্ষেপে সেরেছেন রাজনৈতিক বক্তৃতা, এমন উদাহরণও পাওয়া যায়। 

তাই স্বভাবতই ভেঙে পড়েছেন মোহনবাগান তাঁবুর সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তারা। এঁদেরই মধ্যে একজন স্বপন সাধন বসু যাকে গোটা বাংলা টুটু বসু নামেই চেনে। এদিন তিনি পুরনো দিনের কথা মনে করে কিছুটি বিহ্বল হয়ে পড়েন। তাঁর স্ত্রী মারা যাওয়ার পর কীভাবে সুব্রত দেড় ঘণ্টা ধরে সান্ত্বনা দিয়েছিলেন সেই কথা বলেন তিনি। 

টুটুর সংযোজন, “মোহনবাগানের (Mohun Bagan) নতুন ক্যান্টিন হয়েছে। ফোন করে বলল, এত যে সাজিয়ে গুছিয়ে ক্যান্টিন করলে, খাওয়াবে না? আমি বললাম, ও কী কথা! চলে, এসো। তোমার জন্য তো অবারিত দ্বার। সন্ধেবেলা চলে এল। টোস্ট, চিকেন স্টু, ডেভিল সাপটে খেল।”

Also Read:

ভাইফোঁটাতে ভাইয়ের কপালে নয়, ম্যানগ্রোভ চারাতে ফোঁটা দিলেন সুন্দরবনের বোনেরা

তথাগতকে দল ছাড়তে বললেন দিলীপ, কেন জানেন?

Joy Banerjee: পদ্ম শিবিরের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করলেন অভিনেতা-রাজনীতিবিদ জয় বন্দ্যোপাধ্যায়