Goa: রাজ্যপাল মালিকের বিষ্ফোরক দাবিকে হাতিয়ার করে মুখ্যমন্ত্রী সাওয়ান্তের পদত্যাগ দাবি কংগ্রেস-তৃণমূলের

54

মহানগর ডেস্ক: রাজভবনের আখড়াকে ‘অরাজনৈতিক’ বলে গণ্য করা হলেও আদতে যে তা সত্য নয় এই কথা সর্বজন বিদিত। মেঘালয়ের রাজ্যপাল সত্যপাল মালিকের বিস্ফোরক মন্তব্য সেই স্বীকৃতিকে আরও জোরদার করেছে।

বেশ কিছুদিন ধরে নিজের নিয়োগকর্তা বিজেপি পরিচালিত কেন্দ্রীয় সরকারকে চাপে ফেলছেন তিনি। প্রথমে সকলকে হতচকিত করে দিয়ে কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করে বসেন গভর্নর মালিক। গোয়ার বিজেপি নেতৃত্বাধীন প্রমোদ সাওয়ান্ত পরিচালিত সরকারকেও দুর্নীতিপরায়ণ বলে আক্রমণ করেন তিনি। উল্লেখ্য, অতীতে গোয়া রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান ছিলেন সত্যপাল।

বলাই বাহুল্য ভোটমুখী গোয়ায় এনিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক। বিগত ৯ বছরেরও বেশি সময় ধরে রাজ্যে ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের কিংবদন্তি নেতা মনোহর পারিকরও প্রয়াত হয়েছেন। তাই এমনিতেই চাপে রাজ্যের শাসক দল। এর মধ্যে গোয়ায় প্রাক্তন রাজ্যপালের বিষ্ফোরক মন্তব্য তাঁদের অস্বস্তি আরও বাড়িয়েছে।

এই সুযোগে ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমেছে কংগ্রেস ও তৃণমূলের মতো বিরোধী দলগুলো। তৃণমূল সাংসদ তথা দলের সর্বভারতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও ব্রায়েন এক টুইটার মাধ্যমে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী সাওয়ান্তকে চরমপত্র দিয়ে দিয়েছেন। ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সাওয়ান্তের পদত্যাগ দাবি করেছেন ডেরেক। পাশাপাশি, সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির তত্ত্বাবধানে বিশেষ তদন্তেরও দাবি জানিয়েছেন তিনি।

টুইটে তিনি লিখেছেন “বিজেপির নিয়োগ করা মেঘালয়ের রাজ্যপাল তথা গোয়ার প্রাক্তন রাজ্যপাল বললেন যে গোয়া সরকার, গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী একটি দুর্নীতিগ্রস্ত সরকার চালায়। সব স্তরে এই সরকার দুর্নীতিগ্রস্ত। তিনি (রাজ্যপাল সত্যপাল মালিক) কোভিড, রাস্তা নির্মাণসহ সব বিষয়ে দুর্নীতির কথা বলেছেন। আর এটা বলেছেন কে? বিজেপি সরকারের নিয়োগ করা মেঘালয়ের বর্তমান রাজ্যপাল।”

পিছিয়ে ছিল না কংগ্রেসও। কংগ্রেস নেতা তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা দিগম্বর কামাত বলেন, “রাজ্যপালের অভিযোগের পরে সাওয়ান্তের সরকার চালিয়ে যাওয়ার কোনও নৈতিক অধিকার নেই।”

Also Read:

Sardar Udham : ‘ব্রিটিশ-বিরোধী’ গল্প বলে নেই অস্কার দৌড়ে, মনোনয়নে রাখলেন না নিজের দেশের লোকই

Aryan Drug Case : ‘বলিউডের এই চুপ করে থাকা লজ্জার’ আরিয়ান-কাণ্ডে বলিউডের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সঞ্জয় গুপ্ত

প্রচার মঞ্চ থেকে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ অভিষেকের, তিন মাসের মধ্যে গোয়ায় জোড়াফুল ফোটানোর হুংকার