কর্মীকে ‘শিক্ষা’ দিতে খুচরো পয়সায় বেতন, হস্তক্ষেপ শ্রম দফতরের

42

নিজস্ব প্রতিনিধি: মালিক-কর্মচারি দ্বন্দ্ব। সে আর কোথায় না হয়! তবে তার পরিণতি যে এমন হবে, তা বোধহয় দুঃস্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেননি ওই কর্মী। খুচরো পয়সায় পেলেন বেতন। পয়সা গুণতে গিয়ে ক্লান্ত কর্মী শেষমেশ হাল ছেড়ে দিতে দ্বারস্থ হলেন শ্রম দফতরের। আমেরিকার জর্জিয়ার ঘটনায় হতবাক দুনিয়া।

জর্জিয়ার এক কারখানায় কাজ করতেন অ্যান্ড্রিয়াজ ফ্লেটেন। পেশায় মেকানিক। মালিকের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ভালোই ছিল। তবে দীর্ঘদিনের সে সম্পর্ক তলানিতে এসে ঠেকে এই সেদিন। তার পর থেকে ফ্লেটেন আর মালিককে পাত্তা দেননি। তিনি কেবল মন দিয়ে নিজের কাজটুকুই করে যান। এদিকে বসও প্রতিশোধ নেওয়ার পন্থা খুঁজতে শুরু করেন। ইতিমধ্যেই মাস শেষ হয়ে যায়। ‘অবাধ্য’ কর্মীকে উচিত শিক্ষা দেওয়ার উপায়ও খুঁজে পেয়ে যান তিনি। ফ্লেটেনের বেতন ৯১৫ ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৬৭ হাজার টাকা। পুরো টাকাটাই খুচরো পয়সায় দেন ওই কারখানার মালিক মাইলস ওয়াকার। প্রথমে বেতন গুণতে শুরু করেন ওই মেকানিক। পরে ধৈর্য হারিয়ে ফেলেন। শেষমেশ বিরক্ত হয়ে ফ্লেটেল গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন। পরে সেটিই ভাইরাল হয়।  ঘটনায় নড়চড়ে বসে মার্কিন শ্রম দফতর। তারা আদালতে যায়। এর পরেই ওয়াকারের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে কর্মীকে হেনস্থা, শ্রম আইন লঙ্ঘন সহ একাধিক মামলা দায়ের হয়েছে।