করা হচ্ছে অক্সিজেনের অপচয়, সরকারি হাসপাতালগুলোতে কমিটি গঠনের নির্দেশ স্বাস্থ্য দপ্তরের

19

মহানগর ডেস্ক: অক্সিজেনের অপচয়! সরকারি হাসপাতালে হচ্ছে অক্সিজেনের অপচয়। এই নিয়েই এবার প্রশ্ন উঠল। আর সেই অপচয় যাতে বন্ধ করা যায় তাই ইতিমধ্যেই রাজ্যের সমস্ত সরকারি হাসপাতালগুলিকে কমিটি গঠন করার নির্দেশ দেওয়া হল স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যে পরিমাণ অক্সিজেনের ব্যবহার হয়েছিল, সেই পরিমাণ ব্যবহার তৃতীয় ঢেউয়ে হচ্ছে না। গোটা রাজ্যে দুই হাজারের কিছু বেশি রোগী হাসপাতালে ভর্তি। তাদেরকে সকলকে অক্সিজেন দিতে হচ্ছে এমনটাও নয়, কিন্তু তারপরেও অক্সিজেনের খরচ কমেনি।

স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, এই পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে প্রতিটি হাসপাতালে নজরদারি কমিটি গড়ে তুলতে হবে। যারা অক্সিজেনের অপচয় বন্ধ করবেন। দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় যখন প্রাণের হাহাকার চলছে, তখন অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে হয়েছিল কালোবাজারি। কত কম সময়ে বেশি টাকায় পাওয়া যাচ্ছিল সেই সময় অক্সিজেন। শুধু কলকাতা নয়, গোটা রাজ্যের একই ছবি ফুটে উঠেছিল। ক্রমাগত সেই অপচয় এর পরিমাণ বেড়েই চলেছে। যার দ্বারা মানুষ বেঁচে থাকে, সেই অক্সিজেনের অপচয় হচ্ছে সরকারি হাসপাতালে।

স্বাস্থ্য ভবন সূত্রে জানা গিয়েছে, হাসপাতালগুলিকে অক্সিজেনের অপচয় বন্ধ করতে একটি কমিটি গড়ার কথা বলা হয়েছে। দ্বিতীয় ঢেউয়ের তুলনায় এখন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা কম। রোগীদের অক্সিজেন এর চাহিদাও কম। কিন্তু তা স্বত্তেও দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় যতটা অক্সিজেন খরচ হচ্ছিল, এখনও তেমন করেই অক্সিজেন খরচ হচ্ছে। তাই প্রশ্ন উঠেছে সরকারি হাসপাতালগুলি নিয়ে। এত অক্সিজেন কোথায় খরচ করা হচ্ছে? কি কারণে এই পরিস্থিতি এসে দাঁড়াল? মনে করা হচ্ছে, অনেক ক্ষেত্রে রোগীর অক্সিজেনের চাহিদা শেষ হয়ে যাওয়ার পর সেই অক্সিজেনের নল সঠিকভাবে বন্ধ হচ্ছে না। যে স্বাস্থ্যকর্মীরা কর্মরত অবস্থায় রয়েছেন তাঁরা বিষয়টি নজর এড়িয়ে যাচ্ছেন।