ভারতে এসেও কোয়ারেন্টিন সেন্টারে যেতে হল না পাক কূটনীতিকের পরিবারকে, ‘সৌজন্যে’ বিদেশমন্ত্রক

30
news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা আবহের মধ্যেই পাকিস্তান থেকে ভারতে এলেন পাক কূটনীতিকের স্ত্রী ও দুই সন্তান। আট্টারি-ওয়াঘা সীমান্ত দিয়ে তারা ভারতে প্রবেশ করলেও তাদের কোয়ারেন্টিন সেন্টারে অবশ্য যেতে হল না। সৌজন্যে, ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের বিদেশি কূটনীতিক ও তাদের পরিবারের জন্য বিশেষ নির্দেশিকা অনুসারেই ওই পাক কূটনীতিকের পরিবারকে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে পাঠানো হয়নি।

গত ২৩ মে সীমান্ত পেরিয়ে তারা ভারতে প্রবেশ করেন। তবে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে তাদের পাঠানো না হলেও ওই পাক কূটনীতিকের পরিবারকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। বিদেশমন্ত্রকের নিয়ম অনুযায়ী ওই পাক কূটনীতিকের পরিবারের আগে আরটি-পিসিআর টেস্ট হয়েছে। তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসার পর যা ভারতের কাছে জমা দিতে হয়েছে। তারপরেই সীমান্ত দিয়ে তাদের ভারতে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়েছে এবং তাদের মুচলেখা দিতে হয়েছে যে কমপক্ষে ১৪ দিন তারা হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।

প্রসঙ্গত, যেসব ভারতে নিয়োজিত বিদেশি দূত অন্য রাষ্ট্রে লকডাউনের কারণে আটকে পড়েছেন তাদের ভারতে ফেরাতে উদ্যোগী হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। যদিও সেই জন্য কিছু নির্দেশিকা তৈরি করেছে বিদেশমন্ত্রক। প্রত্যেক রাষ্ট্রদূত ও তাদের পরিবারকে ভারতে প্রবেশের আগে করোনার টেস্টিং করাতে হবে ও নেগেটিভ রিপোর্ট এলে তবেই চার্টার্ড বা নন শিডিউল কমার্শিয়াল ফ্লাইটে করে ভারতে প্রবেশ করতে পারবেন। এছাড়া তাদের দূতাবাসে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। তবে ভারতে প্রবেশের পর তাদের স্ক্রিনিং করা বাধ্যতামূলক।

অন্যদিকে, পাক সীমান্তের ওপারে ট্রাক চলাচল ধীরে ধীরে শুরু হচ্ছে। খুব শীঘ্রই ভারত ও আফগানিস্তানের মধ্যে সড়কপথে বাণিজ্য শুরু হবে। যদিও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর তা বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান। কিন্তু লকডাউনের পর তা ফের চালু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।