পল্লবীর থেকে প্রতিনিয়ত মোটা অঙ্কের টাকা নিত সাগ্নিক, দাবি পরিবারের

100

মহানগর ডেস্ক: টেলি অভিনেত্রী পল্লবী দে’র রহস্য মৃত্যু ঘটনায় একের পর এক উঠে আসছেন নয়া তথ্য। এবার জানা গেল পল্লবী দে’র লিভইন পার্টনার সাগ্নিক চক্রবর্তী নিউ টাউনের যে ফ্ল্যাট কিনেছিলেন সেই ফ্ল্যাটের দাম ছিল ৮০ লক্ষ টাকা। সেই টাকার মধ্যে ৫৭ লক্ষ টাকা দিয়েছিল অভিনেত্রী। অথচ ফ্ল্যাট কেনা হয়েছিল সাগ্নিকের বাবার নামে।

একইসঙ্গে জানা গিয়েছে, সিলিং ফ্যানের ঝুলে আত্মহত্যা করেছে অভিনেত্রী। কিন্তু সেই উচ্চতায় ওঠার মত বাড়িতে কিছুই ছিল না। এমনকি দেহ নামানোর পরে পল্লবীর ফোন থেকেই পল্লবীর মা’কে ফোন করেছিলেন সাগ্নিক। অভিনেত্রী লিভইন পার্টনার পুলিশকে জানিয়েছে, পল্লবীর ফোন থেকে পল্লবীর মাকে খবরটা দেওয়ার পরে তিনি অচৈতন্য হয়ে গিয়েছিলেন। পল্লবী পরিবার দাবি করেছে, নিয়মিত মোটা অংকের টাকা নিত সাগ্নিক, অভিনেত্রী থেকে।

পল্লবীর দুটি ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট এর মধ্যে পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক, এবং দ্বিতীয়টি বেসরকারি একটি ব্যাংক। এছাড়াও পল্লবীর মায়ের পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে এই তিনটি অ্যাকাউন্ট থেকে মোটা অংকের টাকার সাগ্নিক-এর অ্যাকাউন্টে প্রতিমাসে যেত। অভিনেত্রীর পরিবার আরও দাবি করেছে, মৃত্যুর ঠিক কয়েকদিন আগে পল্লবীর অ্যাকাউন্ট থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা ট্রান্সফার করা হয়েছে সাগ্নিকের অ্যাকাউন্টে।

পাশাপাশি আরও জানা গিয়েছে, পল্লবী যে ফ্ল্যাটে ভাড়া নিয়ে থাকতেন, সেই ফ্ল্যাটে পল্লবীর অনুপস্থিতিতে ঐন্দ্রিলা সরকার নামে এক মহিলার যাতায়াত ছিল। অভিনেত্রী লিভইন পার্টনারের সঙ্গে ওই মহিলার সম্পর্ক ছিল বলে দাবি করা হয়েছে। ঐন্দ্রিলা সরকারের বিরুদ্ধেও খুনের অভিযোগ এনেছে পল্লবীর পরিবার।