Petrol Price Hike: ন’মাসে পেট্রোলের দাম বেড়েছে ৩২ টাকা, শুধুমাত্র ট্যাক্সের দামেই চোখ হতে পারে ছানাবড়া

45

মহানগর ডেস্ক: পেট্রোল এবং ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধির অন্যতম কারণ কিন্তু সরকারের চাপানো কর ও শুল্ক।‌ তা সম্পর্কে বোধহয় অনেকেই অবগত। যে দামে ক্রেতাদের তেল কিনতে হয় তার ৬০-৭০% কেন্দ্রীয় এবং বিভিন্ন রাজ্য সরকারের শুল্ক। ইতিমধ্যেই জুলাই মাসে পেট্রোলের দাম বেড়েছে মোট ৯ বার এবং ডিজেলের দাম বেড়েছে ৫ বার।

 

শেষ ৫০ দিনে পেট্রোলের দাম বেড়েছে লিটার প্রতি ১১ টাকা ৫২ পয়সা। ১৭ জুলাই দাম বাড়ার পর থেকে দেশে পেট্রোল ডিজেলের দাম পরিবর্তন হয়নি। এই নিয়ে মোট ৯ বার বৃদ্ধি পেল পেট্রোলের দাম এবং ৫ বার ডিজেলের দাম। সোমবার কলকাতায় এক লিটার পেট্রোলের মূল্য ছিল ১০২ টাকা ০৮ পয়সা আর ডিজেলের মূল্য ৯৩ টাকা ০২ পয়সা প্রতি লিটার। এর মধ্যে কেন্দ্র-রাজ্যের করের পরিমাণ ৫৬ টাকা ১৬ পয়সা৷ কেন্দ্রের পেট্রোল বাবদ কর ৩২ টাকা ৯০ পয়সা, ডিজেল বাবদ কর ৩১ টাকা ৮০ পয়সা। রাজ্যের কর পেট্রোল বাবদ ১৮ টাকা ৪৬ পয়সা। এবং ডিজেল বাবদ ১২ টাকা ৫৭ পয়সা। এর সঙ্গে জুড়ছে ডিলারের কমিশন বাবদ ৩ টাকা ৪৬ পয়সা৷

 

জ্বালানির জ্বালায় জর্জরিত সকলেই। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি রাজ্যসভার অধিবেসনে বিরোধীদের প্রশ্নের জবাবে জানান, বিগত এক বছরে জ্বালানির ওপর বাড়ানো হয়নি করের পরিমাণ। কিন্তু এপ্রিল থেকে এখনও পর্যন্ত পেট্রোলের দাম লিটারে বেড়েছে ৩২ টাকা।

তাহলে কী ভাবে এক বছরে লিটার প্রতি ৩২ টাকা বাড়ল পেট্রোলের দাম, উঠছে প্রশ্ন। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী জানান, বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের মূল্য বৃদ্ধি, পেট্রোল ও ডিজেলের খুচরা বিক্রয়ের জন্য মূল্য বৃদ্ধি এবং রাজ্য সরকারের চাপানো ভ্যাটের কারণেই জ্বালানির দাম বেড়েছে।

 

২০১৪ সালে মোদি সরকারের ক্ষমতায় আসার সময়, পেট্রোলের উৎপাদন শুল্ক ছিল প্রতি লিটারে ৯ টাকা ৪৮ পয়সা আর ডিজেলের ক্ষেত্রে উৎপাদন শুল্ক ছিল ৩ টাকা ৫৬ পয়সা। এখন ওই শুল্ক বেড়ে হয়েছে পেট্রলে ৩২ টাকা ৯০ পয়সা এবং ডিজেলে ৩১.৮০ টাকা।

 

তেলের উৎপাদনের পর তাতে তিন রকমভাবে চাপানো হয় কর। ডিলার কমিশন, কেন্দ্রের কর এবং তার ওপর রাজ্য সরকারের ভ্যাট ও সেস জুড়ে রাজ্য ভিত্তিক দাম স্থির হয়। এই বিপুল পরিমাণ উৎপাদন শুল্কের কারণে তেলের দাম বেড়েছে এতখানি।