Home Kolkata মমতার ধর্নামঞ্চে অভিষেকের অনুপস্থিতি, বোন অদিতির পোস্ট নিয়ে জল্পনা

মমতার ধর্নামঞ্চে অভিষেকের অনুপস্থিতি, বোন অদিতির পোস্ট নিয়ে জল্পনা

by Mahanagar Desk
53 views

মহানগর ডেস্ক:   তৃণমূলের অন্দরে এখন একটাই প্রশ্ন, ১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকার দাবিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আন্দোলন দিল্লি থেকে কলকাতার রাজভাবনকে উত্তাল করেছিল, অথচ সেই আন্দোলন যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেড রোডে শুরু করলেন তখন সেই মঞ্চে অভিষেক উপস্থিত নেই কেন? এই নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বোন অদিতি গায়েন ফেসবুকে একটি ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট করেন। অদিতি লেখেন, “যোগ্য ব্যক্তিরা স্থান পায় না, অযোগ্য ব্যক্তিদের নিয়ে ঘর সাজায়”। ঠিক কার উদ্দেশে অদিতি ফেসবুকে এই কথা লিখেছেন, তা স্পষ্ট নয়। তবে তাঁর এই পোস্ট ঘিরে জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।

রবিবার তৃণমূল যুব রেড রোডের ধর্ণা মঞ্চ সামলাচ্ছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় একসময় তৃণমূল যুব সংগঠনের সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে বর্তমানে অভিষেকের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন সায়নী ঘোষ। মমতার ধর্নামঞ্চে অভিষেকের অনুপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তাঁকেও। তবে সায়নীর বক্তব্য, “উপস্থিত-অনুপস্থিত থাকার কথা নয়। এর আগে, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় যখন আলাদা কর্মসূচি করেন, সেখানেও কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন না। সশরীরে এসেই যে সমর্থন করতে হবে, এমন কথা নয়। দিল্লিতে বাজেট অধিবেশন চলছে। আমরা এতগুলি শাখা সংগঠন রয়েছি, আমাদের মধ্যে সমন্বয় রয়েছে। প্রত্যেকে তৃণমূল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্যই সবাই এসেছেন।” তবে সায়নী মমতার মঞ্চে অভিষেকের অনুপস্থিতি স্বাভাবিক বলে উড়িয়ে দিলেও বিষয়টি যে স্বাভাবিক নয়, তা নিয়ে তৃণমূলের অন্দর থেকে বঙ্গ রাজনীতির ময়দান সরগরম। কারণ এর আগে ১০০ দিনের কাজের বকেয়া টাকা সহ অন্যান্য বকেয়া টাকার দাবিতে অভিষেকের নেতৃত্বেই দিল্লিতে ধর্নায় বসে তৃণমূল। কলকাতায় রাজভবনের বাইরেও দীর্ঘ ধর্না-অবস্থান ছিল তাঁর। ১০০ দিনের কাজের বকেয়া কেন্দ্র বাকি রাখলেও, রাজ্য সরকারের জনপ্রতিনিধিরা নিজেদের বেতন থেকে ২৫০০ জবকার্ড হোল্ডারদের টাকা মিটিয়ে দেবেন বলে দিল্লির যন্তরমন্তর থেকে প্রথম ঘোষণা করেন অভিষেকই।

তবে অভিষেকের সেই আন্দোলন যখন বিজেপি কর্মীদের বাড়ি ঘেরাওয়ের দিকে এগোচ্ছে তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই জঙ্গি আন্দোলনকে থামান। রাজভবনের সামনো থেকে রাজ্যপালের আশ্বাস পাওয়ার পর অভিষেক ধর্ণা তুলে নেন, বলেন, তৃণমূলের সাংসদরাই ১০০ দিনের কাজের শ্রমিকদের বকেয়া টাকা দিয়ে দেবেন। কয়েকজন টাকা পেয়েও যান। এর পরই শনিবার কলকাতার ধর্নামঞ্চ থেকে মমতা ঘোষণা করেন, রাজ্যে যে ২১ লক্ষ মানুষের ১০০ দিনের কাজের মজুরি বকেয়া রয়েছে, তা তাঁরাই মিটিয়ে দেবেন। মমতা জানান, ২১ ফেব্রুয়ারি শ্রমিকদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি এই টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু মমতা যখন এই ঘোষণা করেন, তাঁর পাশে তখন উল্লেখযোগ্য ভাবে দেখা যায়নি অভিষেককে, যিনি কিনা প্রথম নিজেদের বেতন থেকে ১০০ দিনের শ্রমিকদের প্রাপ্য বকেয়া টাকা মেটানোর কথা ঘোষণা করেছিলেন। তাই মমতার ধর্নামঞ্চে অভিষেকের এই অনুপস্থিতি সবার নজর কেড়েছে সকলের। বিগত কয়েক দিনে দলের অন্দরে বার বার এই বিভাজনের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে, অভিষেক নিজে যেভাবে লোকসভা নির্বাচনে ডায়মন্ড হারবারে সীমাবদ্ধ থাকার কথা বলেছেন, সেই সব স্মরণ করেই জল্পনা আরও বাড়ছে।

এরই মধ্যে অভিষেকের পরিবারের সদস্যা, তাঁর বোন অদিতির পোস্ট এই বিভাজনের জল্পনা আরও কয়েকশো গুণ বাড়িয়ে দিল। প্রসঙ্গত এর আগে মমতা যখন রেড রোডের অনুষ্ঠান ঘোষণা করেন তখন অভিষেক এই প্রসঙ্গ উল্লেখ না করেই বলেছিলেন, “আমায় ১০০ দিনের কাজের টাকা আদায়ের কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলন থামাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই নির্দেশ দিয়েছিলেন, এখন আবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই বকেয়া আদায়ের জন্য আন্দোলন শুরু করেন। এরপরই মমতার রেড রোডে ১০০ দিনের কাজের টাকার জন্য কলকাতার রেড রোডে কেন্দ্র বিরোধী ধর্ণা মঞ্চ শুরু করেন। আর সেই ধর্ণা মঞ্চে ছিলেন না অভিষেক। এখন প্রশ্ন অভিষেকের আন্দোলন কি মমতা হাইজ্যাক করে নিলেন?

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved