Home Kolkata সুব্রত বক্সীর সই করা শোকজের চিঠি দিল তৃণমূল! এবার কী করবেন কুণাল?

সুব্রত বক্সীর সই করা শোকজের চিঠি দিল তৃণমূল! এবার কী করবেন কুণাল?

by Mahanagar Desk
172 views

মহানগর ডেস্ক : শনিবার নহানগর নিউজে লেখা হয়েছিল, কুণাল ঘোষকে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মুখ খোলার জন্য শোকজ করল তৃণমূল দল। সুব্রত বক্সীর সই করা এই শোকজের চিঠি তৃণমূল ভবন থেকে পৌঁছেছে কুণাল ঘোষের কাছে। এবার কী করবেন কুণাল ঘোষ? তিনিও কী তাপস রায়কে অনুসরণ করবেন? না কি তিনি সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে করা অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেবেন?

প্রসঙ্গত কুণাল ঘোষ সোমবার সকাল ১০টায় মন্ত্রী ব্রাত্য বসুকে নিয়ে যখন বউবাজারে তাপস রায়ের মানভঞ্জন করাতে গিয়েছেন, তখনই কুণাল ঘোষ এই শোকজের চিঠি পান, একই সঙ্গে তাপস রায়ের কাছেও শোকজের চিঠি আসে। এখন প্রশ্ন যে কুণাল ঘোষ তাপস রায়ের মানভঞ্জন করতে যাচ্ছেন সেই কুণাল ঘোষকেই দল শোকজ করছে! প্রশ্ন তাহলে কী কুণাল ঘোষকে দল তাপস রায়ের মানভঞ্জনে পাঠায়নি? কুণাল ঘোষ কি নিজেই তাপস রায়ের বাড়িতে গিয়েছিলেন, যাতে তিনি দল না ছাড়েন সেটা বোঝাতে? কুণাল ঘোষের সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু ছিলেন। তাহলে কি কুণাল এবং ব্রাত্যর তাপসের বাড়ি যাওয়ার বিষয় দল কিছু জানে না? না কি দলকে না জানিয়ে কুণাল এবং ব্রাত্য তাপসের দল ছাড়া আটকাতে গিয়েছিলেন? এদিকে এই শোকজ নোটিশের বিষয়ে কুণাল ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, “শোকজের চিঠি পড়ে তারপর জবাব দেবো।”

এবার কী সংযত হবেন কুণাল? না কী তিনিও তাপস রায়ের পথেই হাঁটবেন। কেন না তাপর রায় দল ছেড়ে বাংলায় বলেছেন, আমি দলের জন্য সঠিক নয়। কুণাল ঘোষও বলেছিলেন, “আমি তৃণমূলে মিসফিট।” তৃণমূলের রাজনৈতিক রসায়নে সুব্রত বক্সী এবং কুণাল ঘোষ পরস্পর বিরোধী শিবিরে অবস্থান করেন। কুণালের বদলে সুব্রত বক্সীকে পূর্ব মেদিনীপুরে “জনগর্জন সভা”-র প্রস্তুতি বৈঠকে পাঠানো নিয়ে কুণাল প্রকাশ্যেই তাঁর ক্ষোভের কথা জানিয়েছিলেন। ফলে সুব্রত বক্সীকে দিয়ে তাঁকে শো-কজ করানোর দলীয় সিদ্ধান্ত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ, বার্তাবহ এবং অর্থবহ! এখন প্রশ্ন কুণাল যা বলছেন তা কি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় মেনে নিচ্ছেন? যদি নেন তাহলে কুণালের অভিযোগে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে কেন দল কিছু বলছে না? আর দল যদি কুণালের মন্তব্য সমর্থন করে তাহলে কেন তাঁকে শোকজ নোটিশ ধরানো হল?

এই শোকজের নোটিশ নিয়ে বিকেলে কুণাল ঘোষ কিছু বলেন কি না সেটাই দেখার। আর কুণাল যদি এর পরেও তৃণমূলে থাকেন তাহলে এটাই প্রমাণ হবে দল সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কেই মান্যতা দিল, কুণালকে নয়। কেন না কুণালের অভিযোগ দল পরিচালনা নিয়ে, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজেপির সঙ্গে সংযোগ রাখা নিয়ে, এমন কী কুণাল ইডি, সিবিআই-র কাছে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের গ্রেফতারির দাবি জানিয়ে তাঁর এক্স হ্যান্ডেলে অভিযোগ তুলেছেন সুদীপের বিরুদ্ধে। কুণালের এই অভিযোগ সুদীপের বিরুদ্ধে হলেও দল পরিচালনা নিয়ে প্রশ্ন তুলে কুণাল ইঙ্গিতে যে বার্তা দিয়েছেন তা হল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল পরিচালনার পদ্ধতি তাঁর না পসন্দ। তাই কুণাল নিজেকে তৃণমূলে মিসফিট বলেছেন।”

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved