Pollution: বায়ুদূষণে বিপদ সংকেত, ভারতীয়দের আয়ু কমতে চলেছে ৫ বছর

91

মহানগর ডেস্ক: ভারতে বায়ু দূষণের (Air Pollution) মাত্রা প্রবল। বায়ু দূষণের জেরেই ভারতবাসীদের আয়ু গড়ে ৫ বছর কমে যেতে পারে, এমনটাই দাবি করছে শিকাগোর এনার্জি পলিসি ইনস্টিটিউটের এয়ার কোয়ালিটি লাইফ ইনডেক্সের নতুন রিপোর্ট। জানা গিয়েছে, এই সংস্থা এদিন তাঁদের যে রিপোর্ট প্রকাশ করেছে তা ২০২০ সালের তথ্যের ওপর ভিত্তি করে। ২০২০ সালে বিশ্বজুড়ে চোখ রাঙাছিল করোনা। সেই সময় দূষণের মান গোটা বিশ্ব জুড়েই কম ছিল। বর্তমানে জনজীবন স্বাভাবিক হওয়ায় মাত্রা বেড়েছে প্রচুর।

শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ সংস্থার প্রস্তুত করা এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, দূষণের নিরিখে সর্বপ্রথমে রয়েছে দিল্লি। সেখানকার বাসিন্দাদের গড় আয়ু ১০ বছর পর্যন্ত কমে যেতে চলেছে। সেই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে সপ্তম স্থানে। এ রাজ্যে দূষণের পরিমাণ ৬৫.৪ মাইক্রোগ্রাম/ঘনমিটার। হুয়ের তরফ থেকে স্থির করা, দূষণের জাতীয় মান প্রতি ঘনমিটারে ৪০ মাইক্রোগ্রাম। এই রেশীয় অনুযায়ী, ভারতবর্ষের বেশিরভাগ রাজ্যে রয়েছে এই মানের চেয়ে অনেক উপরে।

আরও পড়ুন: দু’হাতে বন্দুক দেখিয়ে মুসলিমদের শাসাচ্ছেন এক যুবক!

বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে কম দূষণ রয়েছে লাদাখে। ওখানে জনবসতি অনেক কম। তারপর একে একে রয়েছে অরুণাচল প্রদেশ, কেরল, আন্দামান নিকোবর, পুদুচেরি, তামিলনাড়ু, গোয়া, নাগাল্যান্ড, কর্নাটকের নাম। এই রিপোর্টে বলা হচ্ছে, ভারতবাসীদের দূষণজনিত স্থানে বসবাস করার প্রবণতা বেশি। অর্থাৎ যেখানে জনসংখ্যা বেশি সেখানে দূষণের পরিমাণও বেশি। এছাড়াও গঙ্গার দুপাশে উর্বর জমিতে গড়ে উঠেছে প্রচুর শহরাঞ্চল। সেখানে বড় বড় শিল্প কারখানা থেকে চাষাবাদ ভূমি রয়েছে। যার ফলে ওই অঞ্চলগুলি অত্যন্ত দূষিত বলে চিহ্নিত করেছে শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়।

বিশ্বের ওপর ভিত্তি করে তৈরি এই রিপোর্ট বলছে, এই বায়ুদূষণের জেরে মানুষের আয়ু কমতে পারে ২.২ বছর। অন্য দিকে ধূমপানে ১.৯ বছর, মদ্যপানের জন্য ৮ মাস, অসুরক্ষিত জলের মাধ্যমে ৭ মাস, এইচআইভি ৪ মাস, ম্যালেরিয়া ৩ মাস এবং সন্ত্রাসের জেরে আয়ু কমতে পারে ৯ দিন।