‘গত পাঁচ বছরে উত্তরপ্রদেশে ১৬.৫ লক্ষ যুবক চাকরি হারিয়েছেন, কিন্তু যোগী আদিত্যনাথ এই বিষয়ে কোনও কথা বলেননা’, তুলোধোনা প্রিয়ঙ্কার

12

মহানগর ডেস্ক: দেশের পাঁচ রাজ্যে বেজে গিয়েছে ভোটের দামামা। আর এই পাঁচ রাজ্যের তালিকায় রয়েছে দেশের গরিষ্ঠ রাজ্যের নামও। উত্তরপ্রদেশের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে পাথেয় করেই নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলো। আগামী মাসের ১০ তারিখ থেকে মোট সাত দফায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই বিধানসভা নির্বাচন। আর ভোট যত এগিয়ে আসছে ততই যেন শাসক – বিরোধীদের মধ্যে কটাক্ষ পাল্টা কটাক্ষের ঝাঁঝ আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে।

মঙ্গলবার উত্তরপ্রদেশের কর্মসংস্থান এবং শিক্ষা ব্যবস্থার ইস্যু নিয়ে যোগী সরকারকে কড়া ভাষায় তুলোধোনা করেছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। এদিন তিনি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে দুটি টুইটে মিডিয়া রিপোর্টের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি লিখেছেন,’ উত্তরপ্রদেশে গত ৫ বছরে ১৬.৫ লক্ষ যুবক চাকরি হারিয়েছে। ৪ কোটি মানুষ হতাশা থেকে চাকরির আশা ছেড়ে দিয়েছে। কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই বিষয়ে কথা বলেন না বা টুইট করেন না। কারণ তিনি খুব ভাল করে জানেন যে পর্দা উঠলেই রহস্য উন্মোচিত হবে। আমি যুবসমাজকে অনুরোধ করছি, তোমাদের কর্মসংস্থানের এজেন্ডায় লেগে থাকা উচিত।’

 

এরপর তিনি দ্বিতীয় টুইট করে লিখেছেন,’ যোগী আদিত্যনাথের সরকার ৫ বছরে উত্তরপ্রদেশের শিক্ষা বাজেটে বড় ধরনের কাটছাঁট করেছে। বাজেট বেশি হলে তরুণরা নতুন বিশ্ববিদ্যালয়, ভালো ইন্টারনেট পরিষেবা, স্কলারশিপ, লাইব্রেরি ও হোস্টেল পেত। এটাই এই নির্বাচনের আসল এজেন্ডা। এই বিষয়ে একটি প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন এবং আপনার ভোটের শক্তি দিয়ে যাঁরা আপনাকে বিভ্রান্ত করে তাঁদের উপযুক্ত জবাব দিন।’