নিয়মিত প্রক্রিয়াজাত খাবার খেলে হতে পারে ক্যান্সার!

7

নিজস্ব প্রতিনিধিব্যস্ত জীবন! দু দণ্ড দাঁড়াবার সময় নেই! তাই ফি রবিবার খাসির দোকানে লাইন দিয়ে মূল্যবান সময় নষ্ট করার মানে নেই! অগত্যা প্রক্রিয়াজাত মাংস কিনে নিয়ে বাড়ি ফেরা। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় জানা গিয়েছে, নিয়মিত এই মাংস খেলে ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে।

শরীরের প্রয়োজনে আমরা নিত্য খাই মাছ-মাংস-ডিম। এতদিন এসবই পাওয়া যেত খোলা বাজারে। এখনও পাওয়া যায়। তবে ব্যস্ততার যুগে কে আর গিয়ে ঠায় দাঁড়ান মাছ-মাংসের লাইনে? অতএব আমরা সরকারি, বেসরকারি নানা কিয়স্কে গিয়ে ভিড় করি। চটপট কিনে নিই প্রক্রিয়াজাত মাছ-মাংস। এই প্রক্রিয়াজাত মাছ কিংবা মাংসই হতে পারে আমাদের শরীরে বাসা বাঁধা মারণ ব্যাধির কারণ।

সম্প্রতি এক গবেষণায় জানা গিয়েছে, অ্যানিমেল-বেসড প্রোডাক্ট যদি স্মোকড এবং নুন দ্বারা সংরক্ষিত হয় দীর্ঘদিন, তাহলে সেগুলো আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর। নিয়মিত এসব খাবার খেলে ওজন বৃদ্ধি হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। বাড়ায় ক্যান্সারের ঝুঁকিও। প্রক্রিয়াজাত মাংসে থাকতে পারে কার্সিনোজেন নামক একটি যৌগ। এই যৌগই শরীরে কোলোরেক্টাল ও পেটের ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায়। হট ডগ, সালামি এবং সসেজের মতো পক্রিয়াজাত মাংস খাওয়ার পরিবর্তে বাড়িতে মাংস রান্না করাই ভালো।

ক্যান এবং প্যাকেটজাত খাবারও শরীরের পক্ষে ব্যাপক ক্ষতি করে। নুডলস, ইডলি, উপমা, পাস্তা, ফ্রায়েড ফুডস, পোলাওয়ের মতো প্যাকেটজাত খাবারও শরীরের ক্ষতি করে। এই সব খাবারে বিসফেনল এ নামক একটি রাসায়নিক থাকে। এই যৌগটিও খাবারে মিশে গিয়ে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা, ডিএনএতে পরিবর্তন এবং ক্যান্সারের সৃষ্ট করতে পারে। তাই এসব খাবার না খাওয়া শ্রেয়।