আগামী বছর আরও এগিয়ে আসছে পুজো, সেপ্টেম্বরেই মহালায়া-পঞ্চমী

11
Durga puja 2022
২০২২ সালে অক্টোবরের শুরুতেই শেষ হয়ে যাবে দুর্গাপুজো

মহানগর ডেস্ক: বাঙালি এক বছরের দূর্গা পূজো শেষ হলেই পরের বছরের দূর্গা পুজোর অপেক্ষা শুরু করে দেয়। চলতি বছর মহালয়া হয়েছিল ৬ অক্টোবর। পুজো শুরু হয় ১১ অক্টোবর থেকে। অর্থাৎ ১১ অক্টোবর ছিল ষষ্ঠী। দেবীর বোধন। ১৫ অক্টোবর অর্থাৎ আজ বিজয়া দশমী। উমার কৈলাশ যাওয়ার পালা। তাই সকলেই একইসঙ্গে জয়ধ্বনি দিয়েছে আসছে বছর আবার হবে। দশমীর বিদায়বেলায় বিষাদের ছায়া দেখা দিয়েছে বাঙালির মুখে। তবুও অপেক্ষায় রয়েছে আসছে বছর পুজোর। তাহলে আসুন দেখে নেওয়া যাক ২০২২ সালে দুর্গাপুজো কবে পড়েছে।

বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের কন্ঠে মহালয়া সকাল শুরু হয়। যার রোমহর্ষক উচ্চারণ প্রতিটি বাঙালির রন্ধে রন্ধে রয়েছে। সেই নস্টালজিক ভাবধারাকে টিকিয়ে রাখতে আগামী বছর মহালায়া পড়েছে ২৫ সেপ্টেম্বর, রবিবার। শারদপ্রাতে সূর্যের দিকে মুখ করে নদীর জলে দাঁড়িয়ে সূর্যের দিকে তাকিয়ে তর্পণ করে বহু মানুষ। রবিবার একটি ছুটির দিন।

এর পরেই আসা যাক পুজোর দিন গুলিতে। ষষ্ঠী মানেই শুরু হয়ে যায় পুজো। ২০২২ সালে পঞ্চমী পড়েছে ৩০ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার। মায়ের বোধন। ১লা অক্টোবর মহাষষ্ঠী। যে দিন চক্ষুদানের দিন হিসেবে ধরা হয়।

মহাসপ্তমী পড়েছে ২রা অক্টোবর। রবিবার, গান্ধী জয়ন্তী। মহাসপ্তমীতে নবপত্রিকার স্নান দিয়েই শুরু হয় মহাসপ্তমীর পুজোর। এরপর আসে সেই বিশেষ দিন, যেদিন একইসঙ্গে পাড়ার সকলে মিলে মন্ডপে একত্রিত হয় অঞ্জলি দেওয়ার জন্য। ৩ অক্টোবর, সোমবার, মহা অষ্টমী। এরই সঙ্গে থাকে সন্ধিপুজোর রীতি।

তারপরেই আস্তে আস্তে আবারও বাঙালির মুখে দেখা যায় সেই বিষাদের ছায়া। কারণ চলে আসে মহানবমী। মহানবমী ২০২২ সালে পড়েছে ৪ অক্টোবর। মঙ্গলবার। বিজয়াদশমী পড়েছে ৫ অক্টোবর, বুধবার। দুষ্টের ওপর শিষ্টের বিজয়ের দিন পালন করে আবারও মা চলে যাবেন কৈলাসে।