ভাজ্জিকে টপকালেন অশ্বিন

7
উইকেট দখলের পর অশ্বিনকে অভিনন্দন পূজারার।

মহানগর ডেস্ক: রবিবার উইল ইয়ংকে আউট করে হরভজন সিংকে ছুঁয়ে ফেলেছিলেন তিনি। রবিবার তাঁর প্রথম শিকার ছিল অপর কিউই ওপেনার টম ল্যাথাম। নিউজিল্যান্ডের এই বাঁহাতি ওপেনার সাজঘরে পাঠিয়ে ভাজ্জিকে টপকে গেলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তাঁর সামনে ভারতীয়দের মধ্যে এখন শুধু দুই কিংবদন্তি কপিল দেব এবং অনিল কুম্বলে।

আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে মাত্র ৮০ টেস্টে অশ্বিনের শিকার ৪১৮ জন। ১০৩ টেস্টে ৪১৭ উইকেট নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে ছিলেন টারবুনেটর। কপিলদেবের কেরিয়ারে উইকেট সংখ্যা ৪৩৪। ১৩১টি টেস্ট খেলেছেন তিনি। সব ঠিকঠাক থাকলে অশ্বিন যে শীঘ্রই বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ককেও টপকে যাবেন, তা অনুমেয়। ভারতীয়দের মধ্যে উইকেটের নিরিখে শীর্ষে রয়েছেন অনিল কুম্বলে। ১৩২ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ৬১৯ উইকেট।

পরিসংখ্যান বলছে, টেস্টে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক বোলারদের প্রথম দশজনের মধ্যে অশ্বিনের গড়ই সবচেয়ে কম। স্ট্রাইক রেটও সবচেয়ে কম অশ্বিনের। যে ফর্মে তিনি খেলছেন, তাতে আগামী দিনে বল হাতে আরও যে রেকর্ডই ভাঙতে চলেছেন এই তামিল স্পিনার, তা বলা যেতেই পারে। অবশ্য শুধু বল নয়, ব্যাট হাতেও সমান পারদর্শী তিনি। টেস্ট ক্রিকেটে পাঁচটি সেঞ্চুরিও হাঁকিয়ে ফেলেছেন তিনি।

এদিকে, রেকর্ডের হাতছানি ছিল ইশান্ত শর্মার সামনেও। কিন্তু প্রথম টেস্টে পুরোপুরি ব্যর্থ তিনি। একটি উইকেটও দখল করতে পারেননি দিল্লির এই ডানহাতি পেসার। ভারতীয় পেসারদের মধ্যে টেস্ট উইকেটের নিরিখে যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ইশান্ত। টেস্টে ভারতীয় পেসারদের মধ্যে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক কপিলদেব। তারপরই ইশান্ত শর্মা এবং জাহির খান যৌথভাবে আছেন ৩১১ উইকেট সংগ্রহ করে। কানপুর টেস্টে একটি উইকেট নিতে পারলেই ইশান্ত টপকে যেতেন জাহিরকে। কিন্তু তাঁর অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হল।