অব্যাহত দলবদলের খেলা, বিজেপি ছেড়ে সদলে তৃণমূলে রবীন্দ্রনাথ

12

নিজস্ব প্রতিনিধি: অব্যাহত দলবদলের খেলা! এবার বিজেপি ছেড়ে সদলে তৃণমূলে ফিরলেন রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। উনিশের লোকসভা নির্বাচনের আগে তিনি তৃণমূলেই ছিলেন। দলীয় কোন্দলের কারণে গিয়েছিলেন বিজেপিতে। ফের ঘরওয়াপসি হল রবীন্দ্রনাথের।

মঙ্গলবারই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফেরেন রবীন্দ্রনাথ। এদিনের দলবদলের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্যারাকপুর তৃণমূলের জেলা সভাপতি পার্থ ভৌমিক, রাজ্যের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, ব্যারাকপুরের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী প্রমুখ। রবীন্দ্রনাথ বিজেপি ছেড়ে ঘরে ফেরায় দল আরও শক্তিশালী হল বলেই দাবি তৃণমূল নেতৃত্বের।

কেন তৃণমূলে ফিরলেন? দল বদলের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে রবীন্দ্রনাথ বলেন, তৃণমূলের এক নেতার সঙ্গে আমার মনোমালিন্য হয়েছিল বলেই দল ছেড়েছিলাম। তিনি বলেন, বিজেপিতে গিয়ে সংগঠন গড়ার চেষ্টা করলেও, পারিনি। যদিও আমি বিজেপিতে সভাপতি ছিলাম। কিন্তু সেখান থেকেও আমার মনে হয়েছে ভাইয়ে ভাইয়ে কথা কাটাকাটি হবে। তাই নিজের ঘরে গিয়েই সেটা করা ভালো। তিনি বলেন, তাই আমি আবার সবাইকে নিয়ে তৃণমূলে যোগদান করলাম।

এদিন কেবল রবীন্দ্রনাথ নন, তৃণমূলে যোগ দিলেন রবীন্দ্রনাথের একাধিক অনুগামী বিজেপি নেতাকর্মী। এঁদের যোগদান প্রসঙ্গে শোভনদেব বলেন, রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য গোটা জেলায় প্রায় বিজেপি শূন্য করে দিয়ে সদলবলে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন। তিনি বলেন, আমরা তাঁদের ফের দলে গ্রহণ করলাম। আবার পুরানো সঙ্গীদের ফিরে পেয়ে খুব ভালো লাগছে। একুশের নির্বাচনে বাংলায় বিপুল জয়ের পর মানুষ বিশ্বাস করতে শুরু করেছেন আগামী ২৫-৩০ বছর বাংলায় তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও বিকল্প হবে না। শোভনদেব বলেন, বিজেপির কোনও ভবিষ্যৎ নেই। তাই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফেরার হিড়িক পড়েছে।