Rafiath Rashid Mithila : লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণার মামলায় নাম জড়াল সৃজিতপত্নী মিথিলার, হতে পারেন যেকোনও দিন গ্রেফতার

28
প্রতিষ্ঠানের ফেস অফ ইভ্যালি লাইফস্টাইলের শুভেচ্ছাদূত ছিলেন মিথিলা

মহানগর ডেস্ক : টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠল অভিনেত্রী মিথিলার বিরুদ্ধে। বাংলাদেশের একটি ই-কমার্স সংস্থার হয়ে প্রচার মুখের কাজ করতেন তিনি। তাঁদের অভিযোগ কয়েক লক্ষ টাকা প্রতারণা করেছেন তিনি। গতকাল বাংলাদেশের ডিএমপির রমনা বিভাগের উপকমিশনার সাজ্জাদুর রহমান সংবাদমাধ্যমদের জানিয়েছেন ইভ্যালি নামক ই-কমার্স প্রতারণা কাণ্ডে যেকোনও সময় গ্রেফতার করা হতে পারে মিথিলা এবং তাঁর প্রাক্তন স্বামীর তাহসানদের।

তবে নাম জড়িয়েছে আরও অনেকের। অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া সহ আরও ৯ জনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। সাদ শ্যাম রহমান নামক ইভ্যালির এক গ্রাহক গত ৪ ডিসেম্বর ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে মিথিলাদের নামে মামলা করেছেন। বাংলাদেশে বেশ কয়েক মাস ধরেই সংবাদ শিরোনামে উঠে আসছে ইভ্যালির প্রতারণা কাণ্ড। কিন্তু এরই মাঝে উঠে এসেছে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। নিজের নামে মামলা দায়ের হয়েছে এমনটা জানতেনই না সৃজিত পত্নী মিথিলা। তাঁর মতে কয়েকটি নিউজ পোর্টালের মাধ্যমে জেনেছেন ৯ জনের মধ্যে নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুধু তাই নয় তাঁর প্রিয়জন এবং সাংবাদিকদের থেকে ফোন পেয়ে তিনি এই খবর সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন করেছেন তিনি। সঙ্গে এও বলেছেন মামলা দায়ের হলে যে লিগ্যাল নোটিশ বাড়িতে আসে এক্ষেত্রে তেমন কিছুই হয়নি। তাই তাঁর পক্ষে কিছু জানা সম্ভব নয়।

অভিযুক্ত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছিলেন তাহসান এবং সে প্রতিষ্ঠানের ফেস অফ ইভ্যালি লাইফস্টাইলের শুভেচ্ছাদূত ছিলেন মিথিলা। শবনাম ফারিয়া ছিলেন প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা। সাদ স্যাম রহমান নামক ওই ব্যক্তির অভিযোগ প্রতারিত গ্রাহকদের আত্মসাৎ করেছেন তাঁরা। যে টাকার পরিমাণ ৩ লক্ষ্য ১৮ হাজার এখনও পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি।

ওই ইকোমার্স সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চেয়ার ম্যান মোহাম্মদ রাসেল ও শামীমা নাসরিনকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন অন্যদের ওপর নজরদারি চালাচ্ছে পুলিশ। ওই ই-কমার্স সংস্থা গ্রাহকদের কাছ থেকে যে অগ্রিম ৩০০ কোটি টাকা তুলেছিল তার হদিস এখনও পর্যন্ত নেই। মামলার নথি আপাতত এসেছে ধানমণ্ডি থানায়। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে সব রকম প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Rafiath Rashid Mithila