Haryana: ‘শুধু নরেন্দ্র মোদির ওপর ভর করে ভোট পাওয়া অসম্ভব’, আসন্ন হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ রাও ইন্দ্রজিৎ সিং – এর

11
'শুধু নরেন্দ্র মোদির ওপর ভর করে ভোট পাওয়া অসম্ভব', আসন্ন হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ রাও ইন্দ্রজিৎ সিং - এর

মহানগর ডেস্ক: ২০২৪ সালে হরিয়ানায় বিধানসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচন নিয়েই এক বিতর্কিত মন্তব্য করে বসলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাও ইন্দ্রজিৎ সিং। পরপর দুবার হরিয়ানায় নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি কিন্তু এইবার হ্যাটট্রিক করে নিজেদের সরকার পুনঃপ্রতিষ্ঠা করার ব্যাপারে যথেষ্ট শঙ্কা প্রকাশ করেছেন রাও ইন্দ্রজিৎ সিং।

তিনি বলেছেন, ‘ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আশীর্বাদ আমদের সবার ওপরে আছে। আমাদের রাজ্যের ওপরেও আছে। কিন্তু এইরকম কোনও গ্যারান্টি নেই যে একা নরেন্দ্র মোদির নাম করে মানুষের কাছে ভোট চাইলে এবারেও মানুষ আমাদের ভোট দেবেন। এটা অবশ্যই আমাদের লক্ষ্য যে মানুষ যেন নরেন্দ্র মোদির নামেই বিজেপিকে ভোট দেয় কিন্তু এটা অনেকটাই নির্ভর করছে বিজেপির দলীয় কর্মীদের ওপর যাঁরা দলের প্রাথমিক স্তরে কাজ করেন।’

তৃতীয় বারের জন্য গেরুয়া শিবিরের বাজিমাত নিয়ে যথেষ্ট দোনামোনায় রয়েছেন রাও ইন্দ্রজিৎ সিং। তিনি এই বিষয়ে শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ‘ আমরা সবাই জানি বিজেপি কেন্দ্রে নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছে নরেন্দ্র মোদির ওপর ভর করে। এবং বিজেপির এই জয়ই হরিয়ানায় এক বিরাট প্রভাব ফেলেছিল যার ফলে ২০১৪ সালে হরিয়ানায় প্রথম বিজেপি সরকার প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর দ্বিতীয় বারের জন্যও বিজেপি সফল হয় নরেন্দ্র মোদির ওপর ভর করে হরিয়ানায় নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে। কিন্তু তৃতীয় বারের জন্য এই একই স্ট্র্যাটেজি ফলপ্রসূ হবে কিনা তাতে যথেষ্ট সন্দেহ আছে।’

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচনে মোট নব্বইটি আসন। আর এই নব্বইটি আসনের মধ্যে ৪৭ টি আসন পেয়ে প্রথমবারের জন্য ২০১৪ সালে পদ্মফুল শিবির নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছিল। এরপর ২০১৯ সালে ৪৭ থেকে নেমে ৪০ টি আসন পেয়ে দ্বিতীয় বারের জন্য নিজেদের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছিল গেরুয়া শিবির। অতএব প্রত্যেক বারের বিধানসভা নির্বাচনের সঙ্গে সঙ্গে বিজেপির আসন সংখ্যাও কমতে থেকেছে। তাই এইবারের হরিয়ানা বিধানসভা নির্বাচনে আদৌ বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারবে কিনা এই নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে রাজনৈতিক মহলে।