Health : লাল টকটকে লিচু দেখেই কিনে ফেলেছেন? সাবধান লাল মানেই কিন্তু ‘বিপদ’

424
Health : লাল টকটকে লিচু দেখেই কিনে ফেলেছেন? সাবধান লাল মানেই কিন্তু 'বিপদ'
লাল টকটকে লিচু মানেই সেটা স্বাস্থ্যের সম্পদ এমনটা মোটেই নয়

মহানগর ডেস্ক : লাল রঙ অনেকের প্রিয় হলেও আক্ষরিক অর্থে কিন্তু লাল বলতে বিপদ সংকেতকেই বোঝায়। ট্রাফিক সিগন্যালের লাল মানে যেমন থামা। ঠিক তেমনই লাল টকটকে মাংসের ঝোলও বিপদের ইঙ্গিত দেয়। একইভাবে বাজারে যখন লাল টকটকে লিচু দেখছেন তখনই ছুটছেন সেইদিকে। ভাবছেন বাজার থেকে একেবারে টাটকা তাজা জিনিসটা নিয়ে আসছেন নিজের পরিবারের জন্য। কিন্তু জানেন কি সব সময় যেটা চকচক করে সেটা সোনা হয় না! লাল টকটকে লিচু মানেই সেটা স্বাস্থ্যের সম্পদ((Health) এমনটা মোটেই নয়।

আরও পড়ুন, একের পর এক ফোন চুরি গাঁটছড়ার সেট থেকে! অভিযোগের তীর শ্রীমার দিকে

ফল ব্যবসায়ীরা ফলকে তরতাজা দেখানোর জন্য এমন অনেক অসাধু পন্থা নিয়ে থাকেন। যা হয়তো আপনার ভাবনার বাইরে। কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধ্যাপক ডক্টর সিদ্ধার্থ দত্ত জানাচ্ছেন, লাল রঙের এক কৃত্রিম জলে চুবিয়ে রাখা হয় লিচু। কপার,ক্রোমিয়াম,ক্যাডমিয়ামের মতো ক্ষতিকর ধাতু রয়েছে সেই জলে। এছাড়া থাকে রেড অক্সাইড,রোডামাইন বি এবং কঙ্গো রেড। এগুলি প্রত্যেকটাই বেনজিডেনডিয়াজ ন্যাপথালামাইন ও সালফোনিক অ্যাসিডের সোডিয়াম সল্ট। যা শরীরে মারাত্মক ক্ষতি করে। একই ধরনের রঙ বেশি মাত্রায় শরীরে গেলে বিষক্রিয়া হয়। যা পরবর্তীকালে কিউমুলেটিভ টক্সিটিতে পরিণত হয়। ক্ষতি করে লিভার ও কিডনির। একটি গবেষণায় দেখা গেছে একটি ইঁদুরকে ২৮ দিন টানা এই জল খাওয়ানো হয়েছিল। যার ফলে ওই ইঁদুরের যকৃতের দফারফা হয়ে গিয়েছে। এমনটা কিন্তু ঘটতে পারে আপনার সঙ্গে।

অপর এক বিশেষজ্ঞের মতে, সমস্ত লিচু টকটকে লাল হয় না। পশ্চিমবঙ্গের সাধারণত তিন ধরনের লিচুর দেখতে পাওয়া যায় যথা বোম্বাই ,বেদানা এবং চায়না। এদের মধ্যে কেবলমাত্র বোম্বাই লিচু রঙ টকটকে লাল হয়। অন্যগুলো হালকা লাল। তবে লাভের আশায় একদল অসাধু ব্যবসায়ী রাসায়নিক ব্যবহার করে লিচুতে কৃত্রিম রঙ দিচ্ছে।

যদিও লিচুতে লাল রঙ ব্যবহার করতে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে কারমোশিন এরিথ্রোসাইন ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সে ক্ষেত্রেও যথেচ্ছাচার ভাবে নয়। এই রঙ গুলি অত্যন্ত দামী এবং স্বাস্থ্যের পক্ষে ততটা হানিকারক নয়।

Health