করোনা-কালে ‘সুজন’ হয়ে দিনরাত এক করে মানুষের পাশে রেড ভলান্টিয়ার্স কর্মীরা

6
kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: করোনা অতিমারি পরিস্থিতিতে প্রতিদিন প্রতিনিয়ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বন্ধুর মতো সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন বামেদের রেড ভলান্টিয়ার্স কর্মীরা। হাওড়াতেও জেলার বিভিন্ন প্রান্তে এরিয়া কমিটির উদ্যোগে শুরু হয়েছে এই সমাজসেবামূলক কাজ। হাওড়ায় বালির দেওয়ানগাজি রোড, বালির তর্ক সিদ্ধান্ত লেন ও চৈতলপাড়া এলাকায় বৃহস্পতিবার তিনজন কোভিড আক্রান্তের পাশে দাঁড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন এরা।

এক কোভিড আক্রান্তকে ঘুসুড়ির জয়সওয়াল হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করা হয়। বালি-বেলুড় রেড ভলানন্টিয়ার্স কর্মীরা এই উদ্যোগ নেন। শুধু বালি, বেলুড়ই নয়, উত্তর হাওড়া, দক্ষিণ হাওড়া থেকে শুরু করে শিবপুর, মধ্য হাওড়া সর্বত্রই প্রতিদিন প্রতিনিয়ত রেড ভলান্টিয়ার্স-এর ব্রিগেড ছুটে বেড়াচ্ছেন শহরের নানা প্রান্তে। কারও বাড়ির কেউ করোনায় আক্রান্ত। কারও বাড়িতে বৃদ্ধ বাবা-মা করোনা-কালে একাকী। কারও শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি। যে রকম জানতে পারছেন, সেই মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন তারা। কারও হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন। কারও বা অ্যাম্বুল্যান্সের প্রয়োজন সব ক্ষেত্রেই রেড ভলেন্টিয়ার্স-এর কর্মীরা মানুষের বিপদে পাশে গিয়ে দাঁড়াচ্ছেন। বন্ধুর মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন তারা। দিবারাত্র কাজ করছেন।

বিধায়ক সংখ্যার নিরিখে রাজ্যে বামেরা এখন ‘শূন্য’। কিন্তু, তাই বলে বসে নেই বাম বিগ্রেড। সংসদীয় রাজনীতিতে বামেদের কোনও ঠাঁই না হলেও করোনা আবহে সাধারণ মানুষের হৃদয়ে স্থান পেতে শুরু করে দিলেন রেড ভলান্টিয়াররা। নির্বাচনী লড়াই চলাকালীনই তৈরি হয়েছে গোটা দেশব্যাপী এই রেড ভলান্টিয়ার। গোটা দেশের সঙ্গে এই রাজ্যেও ক্রমশ বাড়ছে রেড ভলান্টিয়ারের সদস্য সংখ্যা। গোটা রাজ্যে এখনও পর্যন্ত ৮৩ হাজার পার হয়েছে রেড ভলান্টিয়ারের সদস্য সংখ্যা। সেই সসদ্যরা করোনা-কালে এই ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। সাধারণ মানুষ তাঁদের সাধুবাদ জানাচ্ছে।