চলছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, কার আস্তিনে রয়েছে কোন অস্ত্র?

38

নিজস্ব প্রতিনিধি: লাগাতার চলছে গোলাগুলি বর্ষণ। ঝরছে রক্ত। কত প্রাণ নিত্য হচ্ছে বলিদান। যুদ্ধ থামার আপাতত কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। কী কারণে দীর্ঘায়িত হচ্ছে যুদ্ধ? ওয়াকিবহাল মহলের মতে, দুই দেশেরই হাতে রয়েছে ভয়ঙ্কর সব অস্ত্রশস্ত্র। তার জেরেই টানা উনিশ দিন ধরে চলছে যুদ্ধ। এবার দেখে নেওয়া যাক, কার ভাণ্ডারে কোন অস্ত্র রয়েছে।

রাশিয়ার হাতে রয়েছে ৯কে-৭২০ ইসকান্দার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র। ৫০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরের লক্ষ্যে আঘাত হানতে এ অস্ত্রের জুড়ি মেলা ভার। নিশানা অব্যর্থ। সেনাঘাঁটি, হাসপাতাল বা স্কুলগুলিকে এই অস্ত্রেই পুতিন বাহিনী ধ্বংস করছে বলে অভিযোগ। এই অস্ত্রেই প্রাণ হারিয়েছেন ইউক্রেনের বহু নাগরিক। রুশ সেনার আরও একটি মারণাস্ত্র হল ৩এম-১৪ ক্যালিবার ল্যান্ড অ্যাটাক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র। ইউক্রেনের বিভিন্ন জায়গায় এই অস্ত্র দিয়েই হামলা চালাচ্ছে রাশিয়ার বায়ুসেনা। রুশ বাহিনীর হাতে রয়েছে মাল্টিব্যারেল রকেটলঞ্চার-টিওএস-১। এটি প্রায় সাড়ে ৫০০ কিলোমিটার দূরত্ব পর্যন্ত হামলা চালাতে পারে।

রাশিয়ার সঙ্গে সমানে পাঙ্গা নিচ্ছে ইউক্রেনও। এ দেশের সেনার হাতে রয়েছে অত্যাধুনিক বেরাখটার টিবি২ ড্রোন।টানা সাতাশ ঘণ্টা আকাশপথে নজরদারি করতে পারে শক্তিশালী এই ড্রোন। আমেরিকা থেকে কেনা এফজিএম-১৪৮ জ্যাভেলিন ক্ষেপণাস্ত্রও। চার কিলোমিটার দূরের নিশানায় আঘাত হানতে সক্ষম। লাইট অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক ওয়েপনও ব্যবহার করছে ইউক্রেন। ৮০০ মিটার দূরের কোনও লক্ষ্যভেদও করতে পারে এটি। ইউক্রেনিয় সেনার হাতে রয়েছে স্টিঙ্গার সারফেস-টু-এয়ার ক্ষেপণাস্ত্রও। আট কিলোমিটার দূরের কোনও নির্ভুল লক্ষ্যেও আঘাত হানতে পারে এই মারণাস্ত্র।