কয়েকশো কোটি দুর্নীতি! গ্রেফতার পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি

86

মহানগর ওয়েবডেস্ক:পাকিস্তান ন্যাশেনাল অ্যাকান্টিবিলিটি ব্যুরোর হাতে গ্রেফতার হলেন পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি। বৃহস্পতিবার লাহোরে পাকিস্তান মুসলিম লীগের সভাপতি শাহবাজ শরিফের সঙ্গে সংবাদ সম্মেলনে যাওয়ার পথে তাঁকে গ্রেফতার করে পাকিস্তানের তদন্তকারী সংস্থা ন্যাব। কিছুদিন আগেই তাঁর বিদেশ যাত্রার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল পাকিস্তান সরকার। ন্যাবের তরফে আব্বাসির উপর অভিযোগ আনা হয়েছে, ন্যাচেরাল গ্যাস ইমপোর্ট কেলেঙ্কারির। এই মর্মে ন্যাশেনাল অ্যাকান্টইবিলিটি ব্যুরোর তরফে প্রাক্তন প্রধামন্ত্রীকে বলা হয় তিনি যেন তাঁর বয়ান রেকর্ড করার জন্য তাঁদের সদর দফতরে এসে হাজিরা দেন। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরেই তদন্তকারীদের এড়িয়ে গেছেন তিনি।

সূত্রের খবর, অন্তরবর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী থাকার সময়ে তাঁর নামে আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগ ওঠে। সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করে ন্যাশেনাল অ্যাকান্টইবিলিটি ব্যুরো। তদন্তে নেমে জানা যায়, দেশের প্রাকৃতিক গ্যাস কেলেঙ্কারির সঙ্গে সরাসরিভাবে যুক্ত তিনি। জেলবন্দি নাওয়াজের ডানহাত পাকিস্তান মুসলিম লীগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা আব্বাসির উপর কয়েকশো বিলিয়ন ডলারের প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) ক্রয়ের দুর্নীতি রয়েছে। যে দায়ে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানায় ন্যাব।

ইতিপূর্বে পাকিস্তানের দুর্নীতির মামলায় নাম জড়িয়ে জেলে যান নওয়াজ শরিফ। বর্তমানে লাহৌরের কোট লাখপত কারাগারে বন্দি তিনি। আল-আজীজিয়া দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত নওয়াজের সাত বছরের কারাদণ্ডের ঘোষণা করেছিল আদালত। তবে অন্যদিকে ফ্ল্যাগশিপ ইনেভেস্টমেন্ট মামলায় উপযুক্ত সাক্ষ্য প্রমাণের অভাবে তাঁকে রেহাত করা হয়। এছাড়া তাঁকে ২.৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের তরফ থেকে। আদালত চত্বর থেকেই পুলিশ গ্রেফতার করেছিল তাঁকে। দুর্নীতি রোধী আদালতের বিচারপতি আরশাদ মালিক ইসলামাবাদ আদালতে ফ্ল্যাগশিপ ইনেভেস্টমেন্ট এবং আল-আজীজিয়া দুর্নীতি মামলার ওপর নিজের রায় দেয়।