Kolkata : মোহর মোহর চিৎকার! সামনে যেতেই চক্ষুচড়কগাছ প্রত্যক্ষদর্শীদের

68

মহানগর ডেস্ক : গুপ্তধনের গল্প আমরা অনেকেই বিভিন্ন বইতে পড়েছি। তবে চোখের সামনে যদি হঠাৎ গুপ্তধন দেখতে পাওয়া যায় তাহলে অবাক হতে হয়। এমনই এক ঘটনা ঘটলো শহর কলকাতায়। কলকাতায় উদ্ধার বহু পুরনো গুপ্তধন (The hidden treasure)।কয়েক যুগ আগের রুপোর মুদ্রার সন্ধান মেলায় আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। আর এই গুপ্তধন মিলেছে কলকাতা নগর দায়রা আদালত থেকে। সিন্দুকে রাখা রুপোর মুদ্রাগুলি দেখে ‘মোহর মোহর’ বলে চিত্‍কার করে উঠেছিলেন একজন। পরীক্ষা করে দেখা যায় সেগুলি রুপোর মুদ্রা (Silver Coin)। জানা যাচ্ছে, যে রুপোর কয়েন গুলি উদ্ধার হয়েছে সেগুলি ইংরেজদের আমলের। রুপোর কয়েন উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় রীতিমতো আলোড়ন পড়ে যায় ব্যাঙ্কশাল আদালত চত্বরে।

আরও পড়ুন : আমরা চাইনা উদ্ধব ঠাকরে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করুক’, মন্তব্য বিদ্রোহী সেনা বিধায়কের

ব্যাঙ্কশাল কোর্টের রেকর্ড রুমের ভিতর রহস্যময় একটা সিন্দুক। তার চাবিও নিরুদ্দেশ।কুঠুরি খুঁজে দেখার নির্দেশ দিয়েছিলেন কলকাতা নগর দায়রা আদালতের মুখ্য বিচারক সিদ্ধার্থ কাঞ্জিলাল (Siddhartha Kanjilal)।বিচারকের নির্দেশ পেয়ে সিন্দুক খোলার প্রশিক্ষিত কর্মীদের নিয়ে সদলবলে ঢুকলেন আদালতের রেজিস্ট্রার কৌশিক কুণ্ডু। অনেক চেষ্টার ফলে খুলল সিন্দুক। ভিতরে অতি গোপন আরও একটা কুঠুরি। সেখানে সুদৃশ্য দুটি বাক্স। বাক্স দুটি খুলতেই মোট ২২টি রুপোর মুদ্রা বেরিয়ে এল। এগুলির মূল্য যথেষ্টই বেশি।

জানা গিয়েছে, এই মুদ্রাগুলি ১০ থেকে ১৫ কোটি পর্যন্ত দাম হতে পারে। মুদ্রার সঙ্গে মিলেছে ছ’টি বিভিন্ন সাইজের সিলমোহর। মুদ্রাগুলি ১৯৩১ সালের। এগুলি গালা দিয়ে সিল করে রাখা হয়েছে। আদালতের মুখ্য বিচারক সিদ্ধার্থ কাঞ্জিলাল দুষ্পাপ্য ঐতিহাসিক দ্রব্যগুলি চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটকে সুরক্ষিত রাখতে বলেছেন। মানুষকে দেখার সুযোগ করে দিতে সংগ্রহশালা তৈরি করে সেখানে রাখা হবে সেগুলি।