মতুয়াদের নিয়ে ফের বৈঠকে শান্তনু, শুরু দল ছাড়ার প্রস্তুতি!

6

নিজস্ব প্রতিনিধি: বিজেপির অন্দরে বিদ্রোহের আগুন জ্বালিয়েছেন! তার পর এদিন ফের মতুয়াদের নিয়ে বৈঠক করে জল্পনার পারদ আরও চড়ালেন মতুয়া মহাসংঘের কর্তা তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর। এদিনের মতুয়া বৈঠকের আলোচ্যসূচি কী, তা নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা।

শান্তনুর অভিযোগ, বিজেপির অন্দরেই এমন নেতা রয়েছেন, যাঁরা তৃণমূলের উদ্দেশ্য সাধন করছেন। শনিবার কলকাতায় পোর্টট্রাস্ট্রের একটি গেস্ট হাউসে বিজেপির বেসুরো নেতাদের নিয়ে বৈঠকের পর এমনই অভিযোগ করেছিলেন শান্তনু। এদিন মতুয়াদের সঙ্গে বৈঠক করে জল মাপতে চাইলেন তিনি।

বিজেপির কমিটিতে মতুয়াদের ঠাঁই না হওয়ায় ক্ষুব্ধ শান্তনু। ইতিমধ্যেই কয়েকজন মতুয়া বিধায়ককে নিয়ে বৈঠকও করেছেন তিনি। ওই বৈঠকের পর বিদ্রোহীদের সম্পর্কে মতুয়াদের মনে কী আছে, তা পড়ে নিতে চাইছেন শান্তনু। নানা কারণে বিজেপির ওপর ক্ষুব্ধ মতুয়ারা। গেরুয়া খাতায় নাম লিখিয়েও তাঁরা কিছু পাননি বলে অভিষোগ। সেই কারণেই তাঁরা ঠিক কী চাইছেন, তা জানতে চাইছেন অধুনা পাহাড়ের বিজেপি নেতৃত্ব। নানা কারণে বিজেপির ওপর ক্ষুব্ধ মতুয়ারা। কীভাবে তাঁদের ক্ষোভ প্রশমিত করা যায়, সেই রাস্তা খোঁজাও অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল শান্তনুর। মতুয়া মহাসংঘের সাধারণ সম্পাদক সুখেন্দ্রনাথ গায়েনও বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানিয়েছিলেন, শুধু ভোটের সময় মতুয়াদের ব্যবহার করা হয়। তাই মতুয়ারা আর কোনও রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করবে না। মতুয়া মহাসংঘের সভাধিপতি শান্তনু ঠাকুর জানিয়েছিলেন, বিজেপির আর দরকার নেই মতুয়াদের। তবে সংঘাধিপতি বিজেপির ভেতরে আরও একটি সমান্তরাল সংগঠন গড়ে তোলার বার্ত দিলেও, মতুয়ারা সেটা কীভাবে নেবেন, এদিন তাও জানার চেষ্টা করেছেন শান্তনু।

রাজ্যের পাঁচ মতুয়া বিধায়ক এবং শান্তনু বিদ্রোহী হওয়ার পর মতুয়াদের তৃণমূল মুখ মমতাবালা ঠাকুর তাঁদের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, মতুয়ারা ভুল বুঝতে পেরেছেন। তাই তাঁরা তৃণমূলে ফিরে আসছেন। মতুয়া গড়ে বিজেপির পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তাই শান্তনু-সুব্রতদের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। এ ব্যাপারে মতুয়াদের মন বুঝতেও এদিনের বৈঠক বলে ধারণা রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।