Sharad Pawar: রাষ্ট্রপতির চেয়ার থেকে দূরে সরছেন বাবরি বিতর্কের অন্যতম শরদ পাওয়ার

123

মহানগর ডেস্ক: রাজ্যসভার নির্বাচন পর্ব শেষ। এবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য তোড়জোড় শুরু হয়ে গিয়েছে। সমস্ত বিরোধী দলের নেতা-মন্ত্রীদের এক ছাদের তলায় আনতে উদ্যোগী হয়েছেন তৃণমূল (TMC) সুপ্রিমো। তবে জানা গিয়েছে, বিরোধী জোটের প্রার্থী হচ্ছেন না এনসিপি সুপ্রিমো (NCP Chief)। সোমবার মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীদের বৈঠকে শরদ পাওয়ার (Sharad Pawar) জানিয়েছেন, সম্মিলিত বিরোধী জোটের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হচ্ছেন না তিনি।

একদিকে আগামীকাল দিল্লির কনস্টিটিউশন ক্লাবে বিরোধীদের সঙ্গে বৈঠকে যোগ দেওয়ার আগে, আজই দিল্লি পৌঁছেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার NCP মন্ত্রিসভার সদস্যদের এক সমাবেশে পাওয়ার বলেছেন, “আমি রাষ্ট্রপতি পদের জন্য বিরোধী প্রার্থী হব না”। এদিকে জানা গিয়েছে, রাজধানীতে পা রেখেই পাওয়ারের সঙ্গে দেখা করেছেন মমতা।

বুধবার দিল্লিতে বৈঠক বসছে বিরোধী দলগুলির। কিন্তু তার আগে পাওয়ারের এই সিদ্ধান্ত বিরোধী শিবিরের জন্য কিছুটা হলেও ধাক্কা। এই মুহূর্তে তিনি বিরোধী শিবিরের সবচেয়ে বর্ষীয়ান নেতা। তিনি যদি প্রার্থী হন, তবে সকল বিরোধীদের এক ছাদের তলায় আনার কাজ অনেকটাই সহজ হয়। এমনিতে তৃণমূল সুপ্রিমোর সঙ্গে মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্ক বেশ ভালো। সেদিক থেকে তিনি প্রার্থী হলে আপত্তি জানাতেন না বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। সেইসঙ্গে পাওয়ারের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হওয়ার সিদ্ধান্তে, কোনও নেতা-মন্ত্রীর আপত্তি হওয়ার কথা ছিল না।

যে কারণে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল, তিনি হতে পারেন বিরোধী শিবিরের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী। তবে সেই জল্পনার অবসান ঘটিয়েছেন এনসিপি সুপ্রিমো নিজেই। কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও তাঁকে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি তা ফিরিয়ে দিয়েছেন। ফলে এই মুহূর্তে বিকল্প প্রার্থীর খোঁজ চলছে বিরোধীদের।