শীতলকুচি কাণ্ড: ৬ জওয়ানকে পৃথক পৃথক ভাবে হাজিরা দিতে হবে বলে জানাল ‘সিট’

8
kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর কোচবিহারের শীতলকুচিতে গুলি চালানোর ঘটনায় স্পেশ্যাল ইনভেস্টিগেশন টিম গঠন করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার গঠন করার ‘সিট’ কোচবিহারের সেই ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে। ইতিমধ্যে তদন্তের সূত্র ধরে বেশ কয়েকজন পুলিশ অফিসারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। ‘সিট এর আগে দু’বার নোটিশ দিয়ে ডেকেছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর ৬ জওয়ানকে। কিন্তু কেন্দ্রীয় বাহিনী জওয়ানরা সিটের জেরার মুখোমুখি হননি। কেন্দ্রীয় বাহিনীর তরফে বলা হয়, অতিমারি চলার কারণে তারা সশরীরে হাজিরা দিতে পারবেন না। সুতরাং তাদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সে কথা বলার ব্যবস্থা করা হোক। কিন্তু, সিট তা মানেনি। সিটের তরফেবলা হয়েছে, সশরীরে হাজিরা দিতে হবে।

​আগে দু’বার নোটিশ পাঠানোর পরেও হাজিরা না দেওয়ায় সিট এবার কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের আলাদা আলাদা ভাবে তলব করেছে। আগামী ২৫ মে থেকে ২ জুনের মধ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী ওই ৬ জওয়ানকে পরপর হাজিরা দিতে হবে ভবানী ভবনে। মূলত ওই ৬ জনের কাছ থেকে সিট জানতে চাইবে কার নির্দেশে এবং কোন পরিস্থিতিতে সেদিন গুলি চালাতে হয়েছিল?

​গত ১০ এপ্রিল চতুর্থ দফা ভোটের দিন রক্ত ঝরেছিল কোচবিহারের শীতলকুচিতে। ভোটের সকালে সেদিন কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মারা যান চার গ্রামবাসী। এই ঘটনায় সেই সময় কেন্দ্রীয় বাহিনী ও তৎকালীন জেলা পুলিশ সুপারের তরফে বলা হয়েছিল, সেদিন ওখানে গুলি চালানোর মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল বলে কেন্দ্রীয় বাহিনী বাধ্য হয়েছিল গুলি চালাতে। এই ঘটনার পেছনে আসল কী কারণ আছে, তা খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত চালাচ্ছে সিট।