SSC Scam: স্কুলের চাকরি থেকে বরখাস্ত মন্ত্রী কন্যা অঙ্কিতা, মাইনে ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের

142
SSC Scam: স্কুলের চাকরি থেকে বরখাস্ত মন্ত্রী কন্যা অঙ্কিতা, মাইনে ফেরতের নির্দেশ হাইকোর্টের

মহানগর ডেস্ক: এসএসসি দুর্নীতি ( SSC Scam) মামলায় নয়া মোড়। রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর ( Paresh Adhikari) কন্যা অঙ্কিতা অধিকারীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ। ২০১৮ সালের নভেম্বর মাস থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের (political science) সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে চাকরি করছিলেন অঙ্কিতা অধিকারী। কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) রেজিস্ট্রারের কাছে, মোট ৪৩ মাস শিক্ষকতা করার মাইনের টাকা ফেরত দিতে হবে মন্ত্রী কন্যাকে।

ইতিমধ্যেই মন্ত্রীকন্যা অঙ্কিতা অধিকারীকে নিয়ে কোনও রকম সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেনি সিবিআই। তাই মন্ত্রী কন্যাকে নিয়ে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল কলকাতা হাইকোর্ট। প্রসঙ্গত, এক চাকরি প্রার্থী অভিযোগ ছিল, একই সময়ে পরীক্ষা দেওয়ার মেধাতালিকার এক নম্বরে নাম ছিল তাঁর। কিন্তু তিনি চাকরি পাননি। সেই জায়গায় মেধাতালিকায় পাশ না করার লিস্টে অনেক পিছনে ছিলেন মন্ত্রীকন্যা। সেখান থেকে চাকরি হয়ে যায় মন্ত্রী কন্যার। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই এবার চাকরি খোয়ালেন অঙ্কিতা অধিকারী।

এদিকে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর শুক্রবার সকালে, আবারও সিবিআইয়ের নিজাম প্যালেসের অফিসে হাজিরা দিলেন রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী অধিকারী। হাতে তথ্য-প্রমাণ, ফাইলপত্র নিয়ে একেবারে নিরাপত্তারক্ষীদের ঘেরাও অবস্থায় সকাল সাড়ে ১০ টা নাগাদ মন্ত্রী পৌঁছে গেলেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অফিসে।

বৃহস্পতিবার কোচবিহার থেকে কলকাতায় নেমে হাইকোর্টের নির্দেশিকা অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় সংস্থার অফিসে হাজিরা দিয়েছিলেন রাজ্যের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে এসএসসি মামলার তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতি উঠেছে, নিজের মেয়েকে মেধাতালিকায় স্থান না থাকা সত্ত্বেও চাকরি দিয়েছে রাজ্যের মন্ত্রী। সেই অভিযোগ গতকাল সন্ধ্যায় হাজিরা দিয়েছিলেন মন্ত্রী পরেশ অধিকারী। সেখানে ৩ ঘন্টা ধরে চলে জিজ্ঞাসাবাদ। তারপরও সম্পন্ন হয়নি সম্পূর্ণ জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব। তার জন্য শুক্রবার সকালে আবারও ডাকা হয় মন্ত্রীকে।

সিবিআই সূত্রে খবর, এদিন দফায় দফায় মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তদন্তের জন্য মন্ত্রীকে ডাকা হয়েছে অফিসে। প্রায় দে দিন নিখোঁজ থাকার পর অবশেষে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ বাগডোগরা বিমানবন্দরে দেখা মিলেছিল মন্ত্রী পরেশের। কিন্তু সিবিআইয়ের তরফ থেকে তার আগেই সাড়ে তিনটের মধ্যে হাজিরা না দেওয়ায়, পরেশ অধিকারী এবং তাঁর কন্যা অঙ্কিতা অধিকারী নামে এফআইআর দায়ের করা হয়েছিল।